আগ্রার নাম পরিবর্তন করে নতুন নাম ‘অগ্রবন’।

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৫৬৭ বার পঠিত

উত্তরপ্রদেশের এলাহাবাদ, ফৈজাবাদের পর এবার আগ্রার নাম পরিবর্তনে তোড়জোড় শুরু করেছে যোগী আদিত্যনাথের সরকার। রাজ্য বিজেপি সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী, আগ্রার নতুন নাম হতে পারে ‘অগ্রবন’।

আম্বেদকার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক সুগম আনন্দ বলেন, ‘আমাদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে আগ্রার নামকরণের ইতিহাস সম্পর্কে। আমরা সেই ব্যাপারে কাজও শুরু করেছি। খুব শিগগিরই রিপোর্ট পেশ করব আমরা।’

পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্যের অন্যতম স্থাপনা তাজমহলের কারণে আগ্রা পুরো বিশ্বের কাছে পরিচিত নাম। হঠাৎই নাম পরিবর্তন করা হলে পর্যটন খাতে এর বিরূপ প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন অনেক বিশ্লেষক।

ক্ষমতায় আসার পরে নানা জায়গার নাম পরিবর্তন করেছে যোগী আদিত্যনাথের সরকার। ষোড়শ শতকে সম্রাট আকবর গঙ্গা-যমুনার মিলনস্থলে একটি দুর্গ প্রতিষ্ঠা করেন। গঙ্গা-যমুনার সঙ্গমস্থলের সেই দুর্গটির নাম ছিল এলাহাবাদ। পরবর্তী সময় শাহজাহান পুরো শহরটিরই নাম বদলে রেখে দেন এলাহাবাদ। সেই এলাহাবাদের নাম বদলে রাখা হয়েছে প্রয়াগরাজ। উত্তরপ্রদেশের ঐতিহাসিক রেলস্টেশন মোগলসরাইর নাম বদলে পণ্ডিত দীনদয়াল উপাধ্যায় নগর জংশন করা হয়।

১৮৬২ সালে প্রতিষ্ঠিত মোগলসরাই হল ভারতের চতুর্থ ব্যস্ততম রেলস্টেশন। আর এ স্টেশনেরই রয়েছে এশিয়ার সর্ববৃহৎ রেল ইয়ার্ড। এ ইয়ার্ডের দৈর্ঘ্য সাড়ে ১২ কিলোমিটার। এখানে পাঁচ হাজার ওয়াগন রাখার ব্যবস্থা রয়েছে। ফৈজাবাদ জেলার নাম হয়েছে অযোধ্যা। এবার পালা আগ্রার।

যোগী সরকারেরই একাংশ বলছে, এলাকার অনেকের বিশ্বাস, অতীতে এ শহরের নাম ছিল অগ্রবন। যোগী সরকার চায়, সেই নামেই এ শহরকে ফের ডাকা হোক। এ কারণেই ইতিহাসবিদদের শরণাপন্ন হয়েছেন তারা। তারা জানতে চাইছেন, কবে, কোন অবস্থায় অগ্রবনের নাম আগ্রা হয়েছিল। যোগী সরকার ‘অগ্রবন’ নামটির পক্ষে হলেও, আগ্রার বহু বাসিন্দা অবশ্য মনে করেন শহরটির প্রাচীন নাম ছিল ‘আকবরবাদ’।

আকবরের আমলে শহরটি এই নামে পরিচিত ছিল বলে মনে করেন তারা। তবে অগ্রবন হোক বা আকবরবাদ, আগ্রার টুরিস্ট গাইডরা নাম পরিবর্তনের বিষয়টিতে আদৌ খুশি নন।

তারা বলছেন, গোটা পৃথিবীই তাজমহলের কারণে এ শহরকে ‘আগ্রা’ নামেই চেনে। রাতারাতি নাম বদলে ব্যবসায়ে ক্ষতি হতে পারে বলে আশঙ্কা তাদের।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর