আলাউদ্দিন নগর দোকান ব্যবসায়ীদের সমন্বয় মিটিংএ দানবীর আলাউদ্দিন আহমেদ

কে এম শাহীন রেজা, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি ॥
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৯ মে, ২০২৩
  • ৫৬ বার পঠিত

 

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার নন্দলালপুর ইউনিয়নের আলাউদ্দিন ফাউন্ডেশন মার্কেটের ২য় তলায় মার্কেট ব্যবসায়ীদের সমন্বয় মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। গত ১৮ তারিখ বৃহস্পতিবার বিকালে নন্দলালপুর ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান খোকনের সভাপতিত্বে সমন্বয় মিটিংএ প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উক্ত মার্কেটের প্রতিষ্ঠাতা ও আলাউদ্দিন আহমেদ ফাউন্ডেশনের সভাপতি, আলাউদ্দিন নগরের রূপকার ও আলাউদ্দিন নগর শিক্ষাপল্লীর জনক, বিশিষ্ঠ শিক্ষানুরাগী, সমাজসেবক ও সমাজ সংস্কারক, বিভিন্ন স্কুল-কলেজ, মসজিদ-মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা, পরিবেশ ও বনায়ন সংরক্ষনবাদী, যান্ত্রিক কৃষি উন্নয়নসহ সেচ প্রকল্প পদ্ধতির প্রবর্তক, খাটি দেশ প্রেমিক, ধর্মপ্রান ব্যক্তি ও হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল লি: এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব ড.আলাউদ্দিন আহমেদ।
প্রধান অতিথি হিসাবে তিনি ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্য বলেন, আমি গত বিশ বছর আগেই কোটি কোটি টাকা খরচ করে এখানে মার্কেট নির্মান করেছি যার সূফল এখন আপনারা পাচ্ছেন। ইতিমধ্যে এই মার্কেটটি একটি মডেল মার্কেটে পরিনত হয়েছে। আমি এই মার্কেটটির আরও উন্নয়ন করব আপনাদের সাথে নিয়ে। আমি দেশ ও জনগনের কল্যানের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। ভাল কাজে বাঁধা আসবে সেই সকল বাঁধাকে ডিঙিয়ে ন্যয় নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাবেন দেখবেন একদিন আপনি সফল হবেনই এটাই আমার নীতি। ভালো কাজ করতে গেলে অনেক বাঁধা আসবে, এই মার্কেট করতে অনেক বাঁধা এসেছে তবে যারা বাঁধা দিয়েছে তারা সফল হতে পারেনি। এ সসময় তিনি বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের সমস্যার কথা শোনেন এবং তার সমাধানও করে দেন তিনি। এসময় তিনি তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পানার নানান দিকও তুলে ধরেন। সেই সাথে নতুন একটি বাজার কমিটি তৈরী করে দেন।
তিনি আরও বলেন, আমি সব সময় আল্লাহর সন্তুষ্টি ও মানব কল্যাণে কাজ করেছি বলেই চকরঘুয়া নামটি পরিবর্তন করে আমার নামে নামকরন করেছেন জেলার কর্তাব্যক্তিরা যা বাংলাদেশের কোথাও কোন ব্যক্তির নামে অন্য গ্রমের নামকরন হয় নাই। এই নামটি একদিনে হয়নি এর পেছনে আমার ছিল অনেক শ্রম, অর্থ ও মেধা খাটিয়ে এলাকার সাধারন মানুষের কল্যানে একই কম্পাউন্ডের মধ্যে সর্ব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তৈরী করেছি, তৈরী করেছি ব্যাংক, বীমা, ডাকঘর, মসজিদ, মাদ্রাসা সহ একাধিক প্রতিষ্ঠান। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে প্রতিষ্ঠিত করেছি স্কুল কলেজ মসজিদ ও মাদ্রাসা। আমি আমাদের এলাকার বেকার সমস্যা সমাধান, দেশ ও এলাকার উন্নয়নের লক্ষে কাজ করে যাচ্ছি। আজ আমি ভাল কাজ করেছি বলেই হয়তো এটা আলাউদ্দিন নগর হয়েছে। তবে আমি আল্লাহর সৃষ্টি জীবিদের কল্যানের জন্যই কাজ করে যাচ্ছি। উল্লেখ্য যে, অতি অল্প সময়ের মধ্যেই ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে বাজারটি। প্রতি দিন কোটি টাকার বেশি লেনদেন হয় এই বাজারে। বাজারের পাশেই রয়েছে কয়েকটি ব্যাংক সহ প্রায় এক হাজার ছোট বড় দোকান। পাশাপশি পশু হাট ও প্রায় ডজন খানেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থাকায় বাড়তি সুবিধা পাচ্ছে এখানকার ব্যবসায়ীরা। যা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যাপক সহযোগীতা করে যাচ্ছে এই মার্কেটটি।
উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে আরও উপস্থিত ছিলেন, হেলথ কেয়ার ফার্মাসিটিক্যাল লিমিটেড এর এজিএম সেজাউর রহমান সেজা, সাইফুল্লাহ্ তপন, বাজার কমিটির সভাপতি শের আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলেমান। উপস্থিত ছিলেন, বাজারের সকল দোকান মালিক, ব্যবসায়ী ও সাধারন জনগন। বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন, বাজার কমিটির সাধারন সম্পাদক রবিউল ইসলাম রাজু।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর