কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ

কে এম শাহীন রেজা,কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি।
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২১ জুন, ২০২২
  • ১৯৬ বার পঠিত

 

কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে কুষ্টিয়ায় মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন ভাড়ায় চালিত প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, ট্রাক, আটো সিএনজির মালিক শ্রমিক ও চালকরা। গত ২০ জুন সোমবার দুপুরে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের ভাদালিয়া হাইওয়ের পুলিশ থানার সামনে অবরোধ করে।
সুত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দিন যাবৎ এই হাইওয়ে পুলিশ মানুষকে জিম্মি করে চাঁদা বাজি করে আসছে। দীর্ঘ দিন ধরা চলা এই চাঁদাবাজি রুখতে আজ মইক্রোবাস সহ বিভিন্ন পরিবহনের শ্রমিক নেতারা রাস্তায় নেমে পড়েন। গাড়ি প্রতি ৫০০/১০০০ টাকা চাঁদা নেওয়ার অভিযোগ তুলেছে বিক্ষোভকারীরা।
বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করার সময়ে শ্রমিকরা বলেন, আজ সকালে ফাড়ির সামনে চেকপোষ্ট করা কালিন ড্রাইভার শহিদুল ইসলাম এর গাড়ি নং ঢাকা মেট্রো-গ ১৯-৭৬৮৪ গাড়ি থামিয়ে কাগজ পত্র দেখতে চায় এবং কাগজ পত্র সঠিক থাকা সত্বেও মামলা দেওয়ার হুমকি দেয়। ওই ড্রাইভারের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করেন পুলিশ। করিম নামের এক ব্যাক্তি বলেন, আমার ছোট্ট সংসার আমি সারাদিন গাড়ি চালায়ে ৫০০ টাকা হাজিরী করে বাড়ি নিয়ে যায় আর এই হাজিরীর মধ্যে থেকে যদি পুলিশকে ই ৪০০/৫০০ টাকা দেওয়া লাগে তাহলে আমরা খাব কি ? পুলিশ তো বেতন পায় তাহলে আমাদের কাছ থেকে চাঁদা নিয়ে চলতে হবে কেন ?
অবশেষে কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থলে গিয়ে হাইওয়ে থানার হয়রানি বন্ধের আশ্বাস দিলে চালকরা অবরোধ তুলে নেন। তবে চাঁদাবাজির অভিযোগ অস্বীকার করে হাইওয়ে থানার ওসি ইদ্রিস আলী বলেন, আমি চ্যালেঞ্জ করেছি, একটা প্রমাণ দিতে পারলে আমি রিজাইন দিয়ে যাব। আমরা গাড়ির কাগজ চেক করি। অবৈধ গাড়ি চলতে দিই না। এ কারণে আক্রোশে চালকরা এই প্রতিবাদ করেছেন। ওসি বলেন, পুলিশের কোনো সদস্য হয়রানি করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করব।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর