কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাব (কেপিসি)’র দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন বিপ্লব সভাপতি ও সোহেল সাধারণ সম্পাদক

কে এম শাহীন রেজা, কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি ॥
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৫৪ বার পঠিত

 

 

কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাব (কেপিসি)’র দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ২০২৩ গতকাল সকাল ১০ টা থেকে শুরু হয়ে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ চলে। কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাব কেপিসি’র প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও জেলা প্রশাসক মোঃ এহেতেশাম রেজা একটি নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করে দেন। সেখানে সিনিয়র তথ্য অফিসার মোঃ আমিনুল ইসলাম রিটার্নিং অফিসার, সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোস্তফা সরওয়ার প্রিজাইডিং অফিসার ও আরও দুই কর্মকর্তাকে পোলিং অফিসারের দায়িত্ব দেওয়া হয়। কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি চত্বরে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ২৩টি পদে ৪৫জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতা করেন। উভয় প্যানেল থেকে ২৩জন প্রার্থী নির্বাচিত হন। সভাপতি পদে রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব (নাগরিক টিভি, বাংলাদেশ বেতার, দৈনিক বাংলা) বিজয়ী হন। নিকটতম প্রার্থী ছিলেন শৈবাল আদিত্য (দৈনিক পূর্বাভাস)। সহ-সভাপতি পদে ১৩৮ ভোট পেয়ে ১ম হন মিলন উল্লাহ (ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন), ১৩৭ ভোট পেয়ে ২য় হন শেখ হাসান বেলাল (আরটিভি),
৮৮ ভোট পেয়ে ৩য় হন মীর আল আরেফিন বাবু‌ (ডেইলি ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস), নিকটতম প্রার্থী ছিলেন অধ্যাপক আমিরুল ইসলাম (সাপ্তাহিক মুকুর) ৬৯ ভোট, ইউসুফ আলী (দৈনিক করতোয়া) ৬৪ ভোট, আরিফুল ইসলাম (সাপ্তাহিক কুমারখালী বার্তা) ২৩ ভোট, রফিকুল ইসলাম (দৈনিক দেশের বাণী) ২৩ ভোট। ১৬২ ভোট পেয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন সোহেল রানা (জিটিভি, যায়যায়দিন), নিকটতম
প্রার্থী ২০ ভোট পেয়ে শাহ আলম রেজা (বাংলাদেশ সমাচার) পরাজিত হন। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে ২০৭ ভোট পেয়ে ১ম হন আফরোজা আক্তার ডিউ (ডেইলি নিউনেশন), ১৭১ ভোট পেয়ে ২য় হন মাহমুদ হাসান (দৈনিক সংবাদ সারাবেলা), ১৪২ ভোট পেয়ে ৩য় হন আখতারুজ্জামান মৃধা পলাশ (দৈনিক মুক্ত খবর), নিকটতম প্রার্থী ২৩ ভোট পেয়ে মোঃ রিপন (সাপ্তাহিক গড়াই) পরাজিত হন। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ১৮১ ভোট পেয়ে ফিরোজ কায়সার (আনন্দ টিভি) নির্বাচিত হন। নিকটতম প্রার্থী ২০ ভোট পেয়ে ইসরাফিল হোসেন (কুষ্টির কন্ঠ) পরাজিত হন। কোষাধ্যক্ষ পদে ১১৫ ভোট পেয়ে ইসমাইল হোসেন (দৈনিক সময়ের আলো) নির্বাচিত হন, নিকটতম প্রার্থী শালমান শাহারিয়ার রাজু (দৈনিক স্বর্ণযুগ) ৮৫ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। দপ্তর সম্পাদক পদে ১১৪ ভোট পেয়ে এসএম ওয়ালিদুজ্জামান শুভ (দৈনিক নবচেতনা) নির্বাচিত হন, নিকটতম প্রার্থী রাকিবুল হাসান (দৈনিক স্বর্ণযুগ) ৮৯ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদে ১৪৭ ভোট পেয়ে এইচএম বেলাল (দৈনিক ঢাকা টাইমস) নির্বাচিত হন, নিকটতম প্রার্থী আল আমিন (দৈনিক স্বাধীন দেশ) ৬২ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে ১৬৮ ভোট পেয়ে জাহিদুল হক ডন (দৈনিক প্রাইম) নির্বাচিত হন, নিকটতম প্রার্থী এসএম সুমন (দৈনিক লোকসমাজ) ৩৫ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক পদে ১১৫ ভোট পেয়ে হাফিজুর রহমান জীবন (দৈনিক গণমুক্তি) নির্বাচিত হন, নিকটতম প্রার্থী সেলিম রেজা বাচ্চু (সাপ্তাহিক দৌলতপুর বার্তা) ৪৮ ভোট, জীবন মাহমুদ ডাবলু মোল্লা (দৈনিক প্রভাত) ৪১ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। ধর্মীয় সম্পাদক পদে ১২৮ ভোট পেয়ে সাঈফ উদ্দিন আল আজাদ (দৈনিক গণকন্ঠ) নির্বাচিত হন, নিকটতম প্রার্থী রাকিব আলী (দৈনিক দেশের বাণী) ৮০ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। ত্রান ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক পদে ১৮০ ভোট পেয়ে আকতার উন নবী মনা (দৈনিক একুশে সংবাদ) নির্বাচিত হন, নিকটতম প্রার্থী সোহেল রানা (দৈনিক আরশীনগর) ২৬ ভোট পেয়ে পরাজিত হন।
এদিকে নির্বাহী সদস্য ১৩জন প্রার্থীর বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ১২৬ ভোট পেয়ে সাবিনা ইয়াসমিন শ্যামলী (এনটিভি) ১ম হন, ১১৯ ভোট পেয়ে জাহিদুজ্জামান (নিউজ টুয়েন্টিফোর টিভি) ২য় হন, ১১৮ ভোট পেয়ে সোহাগ আহমেদ (দৈনিক সাগরখালী) ৩য় হন, ১১৭ ভোট পেয়ে মিলন খন্দকার (মোহনা টিভি) ৪র্থ হন, ১০৭ ভোট পেয়ে কেএম শাহীন রেজা (দৈনিক বাংলাদেশ বুলেটিন, nexus টেলিভিশন, দৈনিক গণকণ্ঠ, বিডি টাইমস নিউজ) ৫ম হন, ১০১ ভোট পেয়ে সেলিম রেজা রনি (চ্যানেল এস) ৬ষ্ঠ হন, ৯১ ভোট পেয়ে ফয়সাল চৌধুরী (এশিয়ান টিভি, দৈনিক আমাদের নতুন সময়) ৭ম হন।
নির্বাচনকে ঘিরে কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি চত্বর ও এর আশে পাশের এলাকায় বিভিন্ন প্রার্থীদের ফেসটুন, ব্যানার ও পোষ্টারে ছেয়ে যায়। দু’টি প্যানেল পৃথক পৃথক প্যান্ডেল করে। সেখানে ভোটারদের আপ্যায়ন ও মধ্যহ্ন ভোজের আয়োজন করে। ভোট কেন্দ্রের চারিদিকে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়। প্রত্যেক ভোটারকে ভোটার আইডি কার্ড বিতরণ করা হয়। ছবিযুক্ত রঙিন ভোটার তালিকায় সদস্যদের ভোট গ্রহণ করা হয়। উভয় প্যানেল থেকে এজেন্ট নিয়োগ করা হয়। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট সম্পন্ন হয়। ১৯৬৫ সালে প্রতিষ্ঠিত ঐতিহ্যবাহী কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি নিয়মতান্ত্রিকভাবে প্রতি ২ বছর অন্তর অন্তর
অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে নির্বাহী পরিষদ গঠন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল নির্বাচন সম্পন্ন হয়। ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করেন জেলা
প্রমাসক মোঃ এহেতেশাম রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু রাসেল, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা আসগর আলী, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পার্থ প্রতীম

 

শীল, বিজ্ঞ পিপি এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী, বিজ্ঞ জিপি এ্যাড. আসম আখতারুজ্জামান মাসুম, কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি আশিকুর রহমান, চাপড়া ইউপি
চেয়ারম্যান এনামুল হক মনজু সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
নির্বাচনে নির্বাহী ম্যাজেষ্ট্রেট স্বরূপ মহুরী ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট তানভীর হয়দার সর্বক্ষনির ভোট গ্রহণ থেকে গণনা ও ফলাফল প্রকাশ পর্যন্ত সার্বক্ষনিক দায়িত্ব পালন করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর