কুড়িগ্রামে কয়েলের আগুনে কৃষকের ছয়টি ঘর পুড়ে ছাই

নয়ন দাস,কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৬ মার্চ, ২০২২
  • ১৩০ বার পঠিত

 

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলায় অগ্নিকাণ্ডে এক কৃষকের গোয়লঘরসহ বসতবাড়ির ছয়টি ঘর পুড়ে গেছে। কয়েলের আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে ফায়ার সার্ভিস। আজ শুক্রবার (২৫ মার্চ) ভোরে উপজেলার হলোখানা ইউনিয়নের মণ্ডলপাড়া গ্রামের কৃষক নুর মিয়ার বাড়িতে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় ঘরে থাকা নগদ টাকা, ৪০-৪৫ মণ ধান ও হাঁস-মুরগিসহ বসতবাড়ির জিনিসপত্র পুড়ে গেছে এবং গোয়ালঘরে থাকা একটি ষাঁড় অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছে।

কুড়িগ্রাম ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী সাজ্জাদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানায়, শুক্রবার ভোরে গোয়ালঘরে আগুন দেখে চিৎকার করে নুর মিয়ার পরিবারের লোকজন। এ সময় এলাকাবাসী ছুটে এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করলেও দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। মুহূর্তেই পুড়ে যায় নুর মিয়ার বসতবাড়ির চারটি থাকার ঘর, একটি রান্নাঘর ও গোয়ালঘরসহ খড়ের গাদা। আগুনে পুড়ে মারা যায় একটি গরু, অগ্নিদগ্ধ হয় আরও একটি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

ভুক্তভোগী পরিবার জানায়, আগুনে ঘরের বিছানা, আসবাবপত্র, ধান ও জমানো টাকাসহ সবকিছুই পুড়ে গেছে। যা কিছু উদ্ধার হয়েছে সেগুলো ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে গেছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য গোলজার হোসেন জানান, নুর মিয়া একজন কৃষক ও বর্গাচাষি। অগ্নিকাণ্ডে তিনি সর্বস্বান্ত হয়ে গেছেন।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী সাজ্জাদ বলেন, ঘরে জ্বালানো কয়েল থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর