কুড়িগ্রামে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি নার্সের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক : অপরাধ টিভি
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৭ অক্টোবর, ২০১৯
  • ২৩৬ বার পঠিত

কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় এক প্রসুতি নার্সের মৃত্যুর অভিযোগে বিভিন্ন ওয়ার্ডে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করছে সহকর্মী নার্সরা। রোববার সকালে ঐ নার্সের মৃত্যুর খবরে সহকর্মীরা চিকিৎসা সেবা বন্ধ রেখে এ বিক্ষোভ শুরু করে।
নার্সরা জানায়, এই হাসপাতালের নার্স হাজেরা আখতার প্রসব বেদনা নিয়ে বৃহস্পতিবার হাসপাতালে ভর্তি হয়। ঐদিনই হাসপাতালের গাইনী চিকিৎসক ডাঃ অমিত কুমার তার সিজার করেন। কিন্তু সিজারের পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরন শুরু হলে শুক্রবার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে নেয়া হলে আজ রোববার সকালে তার মৃত্যু হয়। এ খবর কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে পৌছলে তার সহকর্মী নার্সরা বিক্ষুব্ধ হয়ে হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। নার্সদের অভিযোগ কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের গাইনী চিকিৎসক অমিত কুমারের ভুল চিকিৎসায় হাজেরা বেগমের মৃত্যু হয়েছে। আমরা এ কারনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের নিকট ঐ চিকিৎসকের অপসারনসহ ৭ দফা দাবী জানিয়েছি। এ দাবী না মানা পর্যন্ত আন্দোলন চালিযে যাবো।
নার্স হাজেরা আখতার ১৮ সালের নভেম্বর মাসে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চাকুরীতে যোগদান করেন। তার বাড়ী গাইবান্ধা জেলায়। নিহত হাজেরার শিশু বাচ্চাটি সুস্থ আছে।
এব্যাপারে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের গাইনী চিকিৎসক ডা: অমিত কুমার বসুর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা: শাহিনুর রহমান সরদার জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে প্রসুতি নার্স বিআইসি রোগে আক্রান্ত হওয়ার ফলে অতিরিক্ত রক্ত খরনের কারনে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছিল। সেখানে আইসিইউতে চিকিৎসারত অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।
এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: আবু মো: জাকিরুল ইসলাম অপরাধ টিভিকে জানান, নার্সদের অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত স্বাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর