গাংনীতে অসুস্থ্য রোগীর পাশে দাঁড়ালেন কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ২১৮ বার পঠিত

মেহেরপুরের গাংনীতে অসুস্থ্য রোগীকে চিকিৎসা সেবা প্রদানের অর্থ যোগান দিতে পাশে দাঁড়ালেন কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজ। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর), সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে গাংনী উপজেলার কাথুলী ইউনিয়নের মাইলমারী গ্রামের অসুস্থ্য রোগী রিংকু (২৫) এর নিজ বাসভবনে এসে চিকিৎসার জন্য অর্থ সহায়তা প্রদান করেন উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজের সদস্যরা। মাইলমারী বিলপাড়ার অসহায় আরজ আলীর ছেলে রিংকু প্রায় ১০ বছর ধরে অসুস্থ্য হয়ে পড়ে থাকার পর গত ৩ বছর যাবত পঙ্গুত্ব জীবন-যাপন করছেন।

 

চিকিৎসার জন্য প্রচুর অর্থের যোগান দেওয়া অসম্ভব হওয়ায় এগিয়ে আসলেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি। কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজের সভাপতি সোহানুর রহমানের দিকনির্দেশনায় মঙ্গলবার সকালে বৃষ্টি উপেক্ষা করে সহায়তা প্রদানে আসা কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজের সদস্য আসারুল ইসলাম আসাদ বলেন, অনলাইন নিউজ পোর্টাল মেহেরপুর সমাচার মারফত রিংকু’র অসুস্থ্যতার খবর জেনে চিকিৎসা সেবা প্রদানের অর্থ সহায়তার জন্য আসি এবং আমাদের সাধ্যমত সহায়তার চেষ্টা করি। যাতে করে তার চিকিৎসা সেবা প্রদানের অর্থের জন্য তার বাবার বোঝা কিছুটা হলেও হালকা হয়। আসাদ জানান, কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজ সবসময়ই মানুষের কল্যাণে কাজ করে।

 

সৌদি আরব, বাহরাইন, সিংগাপুর, দুবাই, মালেশিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশে অবস্থানকারী প্রবাসীর ঘাম ঝরানো অর্থে মেহেরপুর জেলা ছাড়িয়ে কুষ্টিয়ার বিভিন্ন এলাকাতেও আমরা অসুস্থ্য ও গরীব মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি। এরই ধারাবাহিকতায় আজ রিংকু’র পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। প্রয়োজনে রিংকু’র চিকিৎসার জন্য আরও অর্থ সহায়তার আশ্বাস দেন। রিংকু’র বাবা আরজ আলী জানান, আমার ছেলে দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ্য রয়েছে। তার চিকিৎসা সেবা প্রদানে আর্থিকভাবে আমি দুর্বল হওয়ায় চিকিৎসা সেবা কিছুটা ব্যহত হয়েছে। তবুও আমি কারও নিকট হাত পাতিনি। ঠিক এমনই সময়ে কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজের উদ্যোগে চিকিৎসা সহায়তা পাওয়ায় আল্লাহ’র প্রতি হাজার শুকরিয়া জানাচ্ছি।

 

তাদের মতো অন্যান্য বিত্তবানেরা এগিয়ে আসলে আমার সন্তান আজ হয়তো বা অসুস্থ্য থাকতো না। তিনি সহায়তার অর্থ পাওয়ায় কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজের সকল সদস্যদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং তাদের এ হাতকে আরও সম্প্রসারিত করার জন্য আল্লাহ’র নিকট প্রার্থনা করেন। এসময় কল্যাণপুর জাগ্রত বিবেক যুবসমাজের সদস্য শিমুল আহমেদসহ অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরে গতবছর ১২ সেপ্টেম্বরে অগ্নিকাণ্ডে ভস্মীভূত হিন্দা গ্রামে প্রতিবন্ধী রহিমা খাতুনের বাড়ি পরিদর্শন করেন। এসময় অসহায় রহিমা খাতুনের বাড়ি তৈরিতে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর