গাংনীতে জমি জায়গা সংক্রান্ত বিরোধ, রক্ত-ক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৮ অক্টোবর, ২০২০
  • ৫৯৫ বার পঠিত

গাংনীতে জমি জায়গা সংক্রান্ত বিরোধ, রক্ত-ক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা


মেহেরপুর প্রতিনিধিমেহেরপুরের গাংনীতে শরিকানা জমি নিয়ে বিরোধ যেকোনো সময় ঘটতে পারে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। গতকাল শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে উপজেলার কামারখালী গ্রামের খা-পাড়াতে শরিকানা জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বাড়ি ঘরে হামলার অভিযোগ তুলেছে মৃত মোজাম্মেল হকের ছেলে ডাঃ ফাজকুরুনী(৩৮)।বাড়ির মালিক জানান, আমি দীর্ঘ্যদিন যাবৎ এই বাড়িতে বসবাস করে আসছি। পেশাগত কারনে এক বছর যাবৎ এলাকার বাইরে বসবাস করি। এখন তারা আমার বাড়ি দখল নিতে চায়।

গতকাল আমি বাসায় এসে আমার বাসা পরিষ্কার করতে গেলে মৃত মাহাতব উদ্দিনের ছেলে বিপ্লব হোসেন(৪২) ও আখতারুজ্জামান(৫০) সহ ১৮-২০জন এসে আমার বাড়ি ভাঙচুর করতে শুরু করে। এ সময় আমার বাড়িতে থাকা মেহেরপুর ০২ আসনের সংসদ সদস্য জনাব শাহিদুজ্জামান খোকনের নির্বাচনকালীন অফিসে থাকা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ভাঙচুর করে তারা। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, আমার বাড়ির পাশে আমার ১০ শতক জমিতে সীমানা প্রাচীর দিতে গেলে তারা বিভিন্ন সময় আমাকে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে। আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে প্রায় ৩ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।স্থানীয় এক যুবক সাদ্দাম হোসেন জানান, ডাঃ ফাজকুরুনী যখন তার বাড়ি পরিষ্কার করছিল। এমন সময় দেখি বিপ্লব ও আক্তারুজ্জামানের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।

এ সময় ডাঃ ফাজকুরুনীর বাড়ির টিনের সীমানা প্রাচীরসহ বাড়িতে হামলা চায়। ফাজকুরুনীকে মারতে আসলে ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে পালিয়ে যায়।স্থানীয় লোকজন জানান, বিপ্লব ও আক্তারুজ্জামান সাথে দীর্ঘদিন ধরে ডাঃ ফাজজকুরুনী মধ্যে এই জমি জায়গা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। আমি যতদূর জানি এই জমি জায়গা নিয়ে ওদের মধ্যে মামলা-মোকদ্দমাও চলছে কিন্তু গত শুক্রবার হঠাৎ সকালবেলা বিপ্লব ও আক্তারুজ্জামানের লোকজন নিয়ে ডাঃ ফাজজকুরুনী বাড়ির টিনের সীমানা প্রাচীর ভাংচুর করে। তবে গত এক বছর যাবৎ ওই বাড়িতে কেউ থাকে না। এই জমি নিয়ে উভয় পক্ষই উত্তেজিত রয়েছে। যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটতে পারে।অভিযুক্ত বিপ্লব হোসেন ও আক্তারুজ্জামান জানান, আমাদের নিজ জমিতে দয়া করে আজকুরুনীকে বসবাস করতে দিয়েছি। তাদের এখানে জমি নাই বল্লেই চলে।

আমাদের শরিকানা জমিতে ডাঃ ফাজকুরুনী প্রাচীর দিতে গেলে আমরা বাধা দিতে যায়। আমরা তার বাড়িতে কোন প্রকার হামলা চালায়নি এবং তাকে মারধরের বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। দীর্ঘ্যদিন যাবৎ বাড়িতে কেউ না থাকার কারণে টিনের প্রাচীর একাই ভেঙে পড়ে গেছে।মেহেরপুর ০২ আসনের সংসদ সদস্য জনাব শাহিদুজ্জামান খোকন জানান, বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাংচুর করা হয়েছে এমন ঘটনা আমি শুনেছি।

 

যারা এই ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি।গাংনী থানার ওসি ওবাইদুর রহমান জানান, উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ দিয়েছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর