গাংনীতে পাটবীজ চাষী প্রশিক্ষণের নামে এসব কি হচ্ছে !ভূঁয়া ব্যক্তিদের নিয়ে দায়সারা প্রশিক্ষণ করে টাকা আত্মসাৎ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০
  • ৫৪৫ বার পঠিত

গাংনীতে পাটবীজ চাষী প্রশিক্ষণের নামে এসব কি হচ্ছে !ভূঁয়া ব্যক্তিদের নিয়ে দায়সারা প্রশিক্ষণ করে টাকা আত্মসাৎ

মেহেরপর প্রতিনিধিঃ

মেহেরপুরের গাংনীতে পাটবীজ চাষী প্রশিক্ষণের নামে এসব কি হচ্ছে। দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের নামে ভূঁয়া ব্যক্তিদের পাটচাষীর তালিকা করে দায়সারা প্রশিক্ষণের অযুহাতে হাজার হাজার টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ শনিবার সকালে উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও পাট বীজ অধিদপ্তরের আয়োজনে দিনব্যাপী প্রশিক্ষণের কথা থাকলেও দায়সারাভাবে প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রশিক্ষণের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ আত্মসাৎ করা হয়েছে।

জানা গেছে, উন্নত প্রযুক্তি নির্ভর পাট ও পাটবীজ উৎপাদন ও সংরক্ষণের প্রকল্পের আওতায় উপজেলার ৯ টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার ১’শ জন পাট চাষী নিয়ে প্রশিক্ষণের কথা থাকলেও সরেজমিনে দেখা দেখা গেছে মাত্র ৬০ জন অংশ নিয়েছে। দেখা গেছে ভূঁয়া রেজিষ্ট্রেশন করে বাদবাকী ৪০ জনের প্রশিক্ষণ ভাতা আত্মসাৎ করা হয়েছে।
জানা গেছে, ১’শ জন পাট চাষী নিয়ে যাদের বিপরীতে একটি নোট খাতা, কলম ও নগদ ৫’শ টাকা করে দেয়া হবে। জেলা পাটবীজ কর্মকর্তা কেএম আব্দুল বাকীর যোগসাজশে প্রকৃত পাট চাষীদের বাদ দিয়ে রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের নামের তালিকা করে দায়সারা প্রশিক্ষণ দিয়ে অর্থ পকেটস্থ করা হয়েছে।

সাংবাদিকদেও পক্ষ থেকে প্রশিক্ষণে পাট চাষীদের তালিকা চাইলে গাংনী উপজেলা পাট কর্মকর্তা মেহেদী হাসান জানান, আমরা চাষীদের তালিকা আপনাদের দিতে পারবো না। তালিকা চাইলে আপনারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর তথ্য অধিকার আইনে দরখাস্ত করতে হবে।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আর এম সেলিম শাহনেওয়াজ জানান, পাটবীজ চাষীদেও নিয়ে আজ প্রশিক্ষণ ছিল । আমি উপস্থিত ছিলাম না। আপনারা ছবি তোলেন নি? আপনাদের কি জানানো হয়নি ? তথ্য প্রদানের ব্যাপারে পাট কর্মকর্তার সাথে আলাপ করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্যঃ বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টালে ১’শ জন প্রশিক্ষণ প্রদান করছে এমন সংবাদ প্রচারিত হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর