গাংনীতে শিশু ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টাকালে বাবাকে উত্তম মধ্যম

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২২
  • ১৭৮ বার পঠিত

মেহেরপুরের গাংনীতে দেড় বছরের শিশুকে মায়ের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টাকালে শিশুর বাবাকে উত্তম মধ্যম দিয়েছে স্থানীয় জনতা।
শনিবার (২৪ এপ্রিল), রাত সাড়ে ৭ টার দিকে গাংনী উপজেলার তেঁতুল বাড়ীয়া ইউনিয়নের সহড়াতলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
গ্রামবাসী জানায়, মথুরাপুর গ্রামের আশিকুর রহমানের সাথে বিয়ে হয় সহড়াতলা গ্রামের ক্যামির সাথে। তাদের সংসারে জন্ম নেয় একটি ফুটফুটে শিশু। কিন্তু প্রতারক আশিক আরও একটি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলে দু’জনের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। শিশুটি মা ক্যামির তত্ত্বাবধানে থাকে। অবশেষে শিশুটি ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হলে তাকে বামুন্দীর একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। এবং বাবা আশিক কে সংবাদ পাঠানো হয় তার সন্তান ডায়রিয়ায়আক্রান্ত হয়েছে। সংবাদ শুনে আশিক ছুটে আসে ছেলকে দেখার জন্য। সঙ্গে নিয়ে আসে তার ২য় স্ত্রীকেও। পরে তার ১ম স্ত্রীকে বকাবকি করতে থাকে কেন সন্তান অসুস্থ হলো। এতে এলাকার উত্তেজিত জনতা চড়াও হয় আশিকের উপর কেন ক্যামিকে বকাবকি করা হচ্ছে এবং উত্তেজিত জনতা কর্তৃক আশিক কে উত্তম মধ্যম দেয়া হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, আশিক গ্রামে এসে ক্যামির কাছ থেকে তার সন্তানকে ছিনিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল এতে উত্তেজিত জনতা আশিক কে উত্তম মধ্যম দিয়েছে। তাদের অভিযোগ সন্তান দেখাশোনার দায়িত্ব ৫ বছর পর্যন্ত ক্যামির উপর অর্পিত হওয়ার পরও কেন আশিক খবরদারী করতে এসেছে। এতে করেই আশিক ও তার ২য় স্ত্রীকে উত্তম মধ্যম দেওয়ার পর ঘরে আটকে রাখা হয় যাতে উত্তেজিত জনতা কোন অঘটন না ঘটাতে পারে।
পরে স্থানীয় ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতে সমাধান শেষে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর