নওগাঁর মহাদেবপুরে অসহায় নারীর বসতবাড়ী সন্ত্রাসী কায়দায় জবরদখলের চেষ্টার অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টারঃ
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২ জুলাই, ২০২৩
  • ৭৩ বার পঠিত

 

 

নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুর ইউনিয়নের ধঞ্জইল গ্রামের অসহায় এক নারীর বসতবাড়ী জবরদখল করার পায়তারা করছেন
তার সাবেক স্বামী মোঃ রহিমুল ইসলা (রঞ্জু)।

থানায় অভিযোগ দিয়েও প্রতিকার না পেয়ে আদালতে মামলা।

মামলা ও অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে,, বিগত ২০১০ সালের পূর্বে ধঞ্জইল গ্রামের মৃতঃ পাঞ্জাতনে ছেলে মোঃ রহিমুল ইসলাম রঞ্জুর সাথে ইসলামী সরিয়া মোতাবেক পারিবারিক ভাবে দেনমোহর বাকী রাখিয়া মোছাঃ সেলিনা সুলতানার বিবাহ হয়।

বিবাহের দেনমোহর বাবদ গত২৭/১১/২০১২ ইং তারিখে-১৩ শতাংশ জমি কবলা দলিল মূলে রেজিষ্ট্রি করে দেয়।

পরবর্তী তে মোছাঃ সেলিনা সুলতানা তাঁর বাবার বাড়ির সম্পত্তি বিক্রি করে সেই টাকা দিয়ে ঐ কবলা কৃত জমিতে বসবাসের জন্য
একটি ইটের তৈরি পাকা বাড়ি নির্মাণ করেন।

তার স্বামীর সাথে সংসার করা কালে ঐ বাড়িতে বসবাস করা অবস্থায় কোনো সন্তান জন্ম গ্রহণ না করায় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু হয়।
নির্যাতনের আকার দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়াই, সয্য করতে না পরে আইনের আশ্রয় নেন,
এবং আইনানুগ ভাবে বিচ্ছেদ হয়।

বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকে ঐ বাড়িতে সেলিনা সুলতানা একাই বসবাস করে আসছেন।
বসবাস রত অবস্থায় তাঁর সাবেক স্বামী প্রান নাশের হুমকি সহ বিভিন্ন ধরনের ভয় ভিতি দেখিয়ে ২০ লাখ টাকা দাবি করেন।
টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় গত ইং ২২/০৫/২৩ তারিখে মোঃ রহিমুল ইসলাম (রঞ্জু),,বিলকিস আরা বকুল সহ তাদের ভাড়া কৃত অগ্যাত সন্ত্রাসী বাহিনী দ্বারা ✂ বাড়ির কাচি গেটের তালা ভেঙ্গে বাড়ি দখলের চেষ্টা করে।

এবিষয়ে মোছাঃ সেলিনা সুলতানা বলেন
আমার কবলা কৃত জমিতে আমি একাই বসবাস করে আসছি।
আমার স্বামীর সাথে ডিভোর্স হওয়ার পর থেকে,, আমাকে আমার বাড়িতে বসবাস করতে দিবেনা জন্য।
বিভিন্ন সময় হত্যার হুমকি, ভয় ভিতি সহ ২০ লাখ টাকা দাবি করে আসছে। টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় বাড়ির তালা ভেঙ্গে আমার উপর হামলা করে। হামলার পরে আহত হওয়ায় চিকিৎসা শেষে থানায় অভিযোগ করি। থানায় কোনো প্রতিকার না পাওয়ায় পরবর্তী তে আদালতে মামলা করি।
প্রশাসনের কাছে আমার দাবি- আমি যেনো আমার বাড়িতে শান্তি পুর্ন ভাবে বসবাস করতে পারি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর