মেহেরপুরে দেড় লাখ টাকার কবুতর চুরি!

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১২ জুন, ২০২২
  • ১৬৮ বার পঠিত

মেহেরপুরের রাজাপুরে রাতের আধারে প্রায় দেড় লাখ টাকার কবুতর চুরির ঘটনা ঘটেছে।
রবিবার (১২ জুন), মধ্যরাত ২ টার দিকে মেহেরপুর সদর উপজেলার বুড়িপোতা ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
কবুতরগুলোর মালিক রাজাপুর গ্রামের ফারুক হোসেন কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, আমার শখের কবুতর। গত ৮ বছর ধরে আমি দেশ বিদেশী বিভিন্ন জাতের কবুতর সংগ্রহ করে পালন করে যাচ্ছি। যা সংখ্যায় বৃদ্ধি পেয়ে ১০০ টিরও বেশি হয়েছে। গত মধ্যরাতে কে বা কারা আমার কবুতরগুলো চুরি করে নিয়ে যায়।
তিনি কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, তারা যদি সত্যিকারের কবুতর প্রেমিক হতো তাহলে আমাকে এভাবে কাঁদিয়ে আমার শখের কবুতরগুলো চুরি করতে পারতোনা।
তিনি জানান, রাত ২ টার দিকে বাইরে বেরিয়ে হঠাৎ দেখি ছাদের উপরের বৈদ্যুতিক লাইট বন্ধ। সন্দেহ হলে উপরে উঠে দেখি কবুতর ঘরের তালা ভেঙে ১০০ টি কবুতরের সবগুলো চুরি করে নিয়ে গেছে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় দেড় লাখ টাকা।
কবুতর চুরির ঘটনায় তিনি কবুতর চুরি হয়েছে বলে চিৎকার শুরু করলে আশেপাশের লোকজন জেগে ওঠে এবং খোঁজাখুঁজি শুরু করেন কিন্তু সন্ধান মেলেনি কবুতর কিংবা চোরের।
ধারণা করা হচ্ছে রাস্তার পাশ দিয়ে ঘরের ছাদে উঠে কবুতরগুলো চুরি করা হয়। এটি পরিকল্পনা অনুযায়ী করা হয়েছে বলেও তিনি জানান। তবে সন্দেহমূলক কারও নাম বলতে রাজি হননি।
প্রতিবেশীর অনেকেই জানান, ফারুক হোসেন দীর্ঘদিন ধরে দেশ বিদেশী বিভিন্ন জাতের কবুতর পালন করে আসছেন। হঠাৎ তার সকল কবুতর চুরি হওয়ায় আমরা মর্মাহত। তিনারা সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে কবুতর চোরদের আটক করে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।
এদিকে কবুতর চুরির ঘটনা স্থানীয় ইউপি সদস্য চঞ্চল কে জানালে তিনি খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন। তবে চুরির ঘটনায় ইউপি সদস্য কি ব্যবস্থা নিচ্ছেন তা দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন ফারুক হোসেন। কবুতর উদ্ধারে ইউপি সদস্য ব্যর্থ হলে তিনাকে নিয়ে থানায় মামলা দায়ের করবেন বলে জানিয়েছেন।
এহেন ঘটনায় ফারুক হোসেন দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তিনি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এবং চুরির সাথে জড়িতদের আটক পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর