মেহেরপুরে পায়রা চুরির অপবাদে শিশু নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১
  • ৫৫৯ বার পঠিত

পায়রা চুরির অপবাদ দিয়ে শান্ত (৮) ও জান্নাতুল (৮) নামের দুই শিশুকে মুখ ও হাত বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য আব্দুল ওহাব ঝন্টুকে আটক করেছে পুলিশ।
আজ মঙ্গলবার রাতে মেহেরপুর শহরের শিশু বাগানপাড়ায় সেনা সদস্য আব্দুল ওহাব ঝন্টুর বাড থেকে নির্যাতিত দুই শিশুকে উদ্ধার করে করা হয়। শিশু শান্ত মেহেরপুর শহরের শিশু বাগানপাড়া সেলিম মিয়ার ছেলে। শিশু জান্নাতুল একই এলাকার মন্টু মিয়ার মেয়ে। জানা গেছে মঙ্গলবার বিকেলের দিকে শান্ত ও জান্নাতুল কেটে যাওয়া একটি ঘুড়ি ধরতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্যে ঝন্টুর বাড়ির ছাদে উঠে। সেনাসদস্য ঝন্টু তাদের ছাদে উঠা দেখে ফেলে। এসময় শিশু ২ জনকে আটক করে তাদের মুখ এবং হাত বেঁধে ছাদে আটকে রাখে। সন্ধ্যার পর দুই শিশুর অভিভাবক তাদেরকে খুঁজতে শুরু করে। এক পর্যায়ে রাত ৯ টার দিকে ঝন্টুর বাড়ির ছাদ থেকে কান্নার আওয়াজ ভেসে আসে। এসময় দুই শিশুর অভিভাবকসহ এলাকাবাসী ঝন্টুর বাড়িতে প্রবেশ করতে চাইলে ঝন্টু তার বাড়িতে প্রবেশ করতে বাধা দেয়। এসময় সে শিশু দুটির বিরুদ্ধে কবুতর চুরির অভিযোগ করে। পরে এলাকাবাসি পুলিশে খবর দেয়। এক ঘণ্টা পর পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে হাত বাঁধা অবস্থায় দুই শিশুকে উদ্ধার করে। উদ্ধার করার পর শান্ত ও জান্নাতুল জানান একটি ঘুড়ি কুড়ানোর জন্য ওই বাড়ির ছাদে উঠি। কিন্তু বাড়ির মালিক কবুতর চুরির অপবাদ দিয়ে আমাদেরকে হাত এবং মুখ বেঁধে ফেলে রেখে দেয়। এদিকে ঘটনা জানাজানির পর ঝন্টুর বিচারের দাবিতে এলাকাবাসী বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। পুলিশ ঝন্টুকে আটক করে মেহেরপুর সদর থানায় নেয় । এ ঘটনায় শিশু দুটির পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

২০,০৪,২০২১

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর