যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় বেকসুর খালাস পেলেন সাংবাদিক লিটন মাহমুদ।

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২২ জুন, ২০২২
  • ২৫৬ বার পঠিত

খুলনা সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলা মিথ্যা প্রমাণিত হওয়া দীর্ঘ ৪ বছর পর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় দায়ের করা মামলায় দৈনিক সকালের সময় ও দৈনিক ঢাকার ডাক প্রত্রিকার মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি ও গাংনী উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক লিটন মাহমুদকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন খুলনা সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালত ।

 

ফেসবুকে মানহানিকর পোস্ট দেওয়ার অভিযোগ এনে ২৪ মে ২০১৮ সালে মামলাটি দায়ের করেন গাংনী উপজেলার ঢেপা গ্রামের বাসিন্দা আসাদুল ইসলাম হারু। ২২/০৬/২২ বুধবার খুলনা সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারপতি কণিকা বিশ্বাস মামলাটি ৫ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ গ্রহণ ও শুনানি ষেশে লিটন মাহমুদকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন। আদালতে উপস্থিত হয়ে লিটন মাহমুদ আইনজীবীর মাধ্যমে স্বাক্ষীদের স্বাক্ষ গ্রহণ ও শুনানি ষেশে লিটন মাহমুদ বেকসুর খালাস পান। লিটন মাহমুদের পক্ষে শুনানি করেন, খুলনা রাবের এডভোকেট এস আর ফারুক,শহিদুল ইসলাম লিটন,আবু ইউসুফ মোল্লা, উজ্জল হোসেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন সাজেদুর রহমান। উল্লেখ্য ঢেপা গ্রামের মসজিদ সংলগ্ন বটতলা থেকে পাঙ্গাসীপাড়া পর্যন্ত পাকা পিচ রাস্তার চলমান কাজ সম্পর্কে স্থানীয়দের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এলাকাবাসী রাস্তাটির বিষয়ে সাংবাদিকদের অভিযোগ করেন হারু মিয়া প্রভাব খাটিয়ে ম্যাপ থেকে সরিয়ে অন্যদের জমির ভিতর ঢুকিয়ে দিয়েছেন।

 

এবং তার বিরুদ্ধে রাস্তার পাশে থাকা তালগাছ অবৈধ ভাবে কেটে ফেলার অভিযোগ করেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে রাস্তার পাশে থাকা তালগাছ অবৈধ ভাবে কেটে ফেলার প্রমাণ পান গাংনী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) দেলোয়ার হোসেন। সাংবাদিক লিটন মাহমুদ জনসাধরণের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থলে গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করেন এবং ২১/০৬/২০১৮ তারিখে রাত ৯ টা ১৭ মিনিটে একটি অনলাইন পত্রিকার নিউজ নিজের ফেসবুকে শেয়ার করেন।

 

কিন্ত মামলার বিবরনের সময় উল্লেখ করা হয়েছে বিকেল পাচটার সময় শেয়ার করা হয়েছে। এছাড়াও ফেসবুকে আলাদা কোন পোস্ট করা হয়নি। সাংবাদিক লিটন মাহমুদ জানান, পেশাগত দায়িত্ব পালনের অংশ হিসেবেই আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে সুনিদিষ্ট তথ্য সংগ্রহ করেছি।তা সত্বে ও আমাকে হয়রানি ও ক্ষতিগ্রস্থ করার জন্য স্পষ্ট মিথ্যা তথ্য দিয়ে বাদি আমার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন মামলাটি দায়ের করেছিল।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর