রংপুরে ৩৭০ পিস ইয়াবাসহ পুলিশ সদস্য গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার অপরাধ টিভিঃ
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৫ অক্টোবর, ২০১৯
  • ১৮৫ বার পঠিত

পালিচড়াহাটে সাদ্দাম নামে এক পুলিশ কনস্টেবল ও তার সহযোগীকে ইয়াবা সরবরাহ কালে গ্রেফতার করেছে রংপুর সদর কোতোয়ালি থানা পুলিশ। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে ৩৭০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয় ।

জানাগেছে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পালিচড়া বাজারে ইয়াবা ট্যাবলেট সরবরাহের সময় সাদ্দাম নামে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের এক কনস্টেবল ও তার সহযোগীকে আটক করেছে রংপুর সদর কোতোয়ালি থানা পুলিশ। আটক কনস্টেবল সাদ্দাম বদরগঞ্জ উপজেলার ১১ নং গোপালপুর ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে, তার সহযোগী একই এলাকার আবেদ আলীর পুত্র রফিকুল ইসলাম মিলন মিয়া।

তারা দু’জন একই গ্রামের বাসিন্দা হওয়ার সুবাদে, দীর্ঘদিন ধরে মাদক সাপ্লায়ার হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ী ও উঠতি বয়সের ছেলেদের কে জিম্মি করে মুক্তিপণ হিসেবে টাকা আদায় করত। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রংপুর সদর কোতোয়ালি থানার এসআই কবীরের নেতৃত্বে এক মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে সদ্যপুস্করিনী ইউনিয়নের পালিচড়াহাট ও বাজার থেকে ৩৭০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ হাতে নাতে ওই দু’জনকে গ্রেফতার করে ।

এসময় কনস্টেবল সাদ্দামের ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল আটক করা হয়। রংপুর সদর কোতোয়ালি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাকির হোসেন জানান,ধৃত কনস্টেবল সাদ্দাম (আরপিএমপি) পুলিশ লাইনে ক্যান্টিনের দায়িত্বে আছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমাদের একটি আভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা কালে কনস্টেবল সাদ্দাম ও তার সহযোগী রফিকুল ইসলাম মিলন মোটর সাইকেল নিয়ে পালানোর চেষ্টা কালে আভিযানিক পুলিশ টিমের হাতে ধরা পরে। উল্লেখ্য যে, মোটরসাইকেল চালাচ্ছিল কনস্টেবল সাদ্দাম, তার আরোহী ছিল রফিকুল ইসলাম মিলন। অপর দুজন অজ্ঞাতনামা দোলাবাড়ি (খেত বাড়ি) দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। তাদেরকেও ধরার চেষ্টা করছে পুলিশ।
গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাকির হোসেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর