হরিণাকুণ্ডুতে এক ইজিবাইক চালককে কুপিয়ে আহত

হরিণাকুণ্ডু ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃবাচ্চু মিয়া
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩১ মার্চ, ২০২৩
  • ৬১ বার পঠিত

 

ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে রবিউল ইসলাম (৪৮) নামে এক ইজিবাইক চালককে কুপিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষরা।
শুক্রবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে পৌরসভার হাসপাতাল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সে পৌরসভাধীন জোড়াপুকুরিয়া গ্রামের মিনাজ উদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকেলে হাসপাতাল মোড়ের মসজিদ থেকে নামাজ পড়ে বের হওয়ার পর কয়েকজন যুবক তাকে কুপিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। তার অবস্থা অবনতি হওয়ায় তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে কর্তব্যরত চিকিৎসক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক স্থানীয় ব্যক্তি জানান, আহত রবিউল জামায়াত কর্মী হিসেবে পরিচিত। সে ২০১৩ সালের ৩ মার্চ জামায়াত শিবিরের হাতে নিহত পুলিশ কনস্টেবল গাজী ওমর ফারুক হত্যা মামলার আসামী। এ ছাড়াও সে জোড়াপুকুরিয়া এলাকার আ‘লীগ নেতা আক্কাস আলী হত্যাচেষ্টা মামলার আসামী বলেও জানা গেছে, তাকে আ‘লীগ সমর্থকরা কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে।

থানা পুলিশ সুত্র জানায়, জোড়াপুকুরিয়া মান্দারতলা গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক বিরোধ চলে আসছে। প্রায়ই ওই দুটি পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটে। এরই জের ধরে প্রতিপক্ষরা তাকে কুপিয়ে আহত করেছে।

রবিউল ইসলামের বাবা মিনাজ উদ্দিন বলেন, আমার ছেলে বিকেলে হাসপাতাল মোড় এলাকায় ইজিবাইক রেখে মসজিদে নামাজ পড়তে যাই। নামাজ পড়ে বের হওয়ার পর তাকে ৪/৫ জন ব্যক্তি অতর্কিত ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা: নাসির উদ্দিন জানান, হাসপাতালে আসা রবিউলের শারীরিক অবস্থা আশংকাজনক। তার পিঠে ও মাথায় একাধিক ধারালো অস্ত্রের আঘাত আছে এবং সেগুলো খুবই গুরুতর। তার রক্তচাপও হঠাৎই নেমে যাচ্ছে। প্রচুর রক্তক্ষরণও হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে রবিউলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হরিণাকুণ্ডু থানার অফিসার ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) আক্তারুজ্জামান লিটন বলেন, আহত ব্যক্তি পুলিশ হত্যা মামলার আসামী কিনা এখনই বলা সম্ভব নয়, তবে সামাজিক বিরোধের জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলেও তিনি জানান।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর