হরিণাকুণ্ডুতে নিয়োগের নিষেধাজ্ঞা চেয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা বাদী হয়ে আদাতলে মামলা

হরিণাকুণ্ডু ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃবাচ্চু মিয়া
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৭৩ বার পঠিত

 

ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ৪ নং দৌলতপুর ইউনিয়নের সোনাতনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সরকারী বিধি মোতাবেক শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে ৩ টি পদে নিয়োগের নিষেধাজ্ঞা চেয়ে ম্যানেজিং কমিটি’র ৩ জনকে বিবাদী করে আদালতে মামলা করেছেন রনাঙ্গনের এক বীর মুক্তিযোদ্ধা। ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ইং তারিখে ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুণ্ডু বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালতে এই মামলা করেছেন ৭১’এর রনাঙ্গনের অকূতভয় যোদ্ধা,উপজেলার সোনাতনপুর গ্রামের সূর্য সেনা রণাঙ্গনের বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক চেয়ারম্যান প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা আবু বকর সিদ্দিক। কোনও নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই সোনাতনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে একজন ল্যাব অপারেটর,একজন নিরাপত্তা কর্মী এবং একজন পরিচ্ছন্নতা কর্মী অবৈধ ভাবে নিয়োগের বিরুদ্ধে এই মামলা করা হয়। যার মামলা নং দেওয়ানী ১৯/২৩.

এঘটনায় কমিটির মেজরিটি পার্সেন্টেজ সদস্যদের না জানিয়েই কোনও রেজুলেশন ছাড়াই ৩০ ডিসেম্বর ২০২২ ইং তারিখ শুক্রবার গোপনে ২ টি পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন কমিটির সভাপতি। আমি এবং অন্য সদস্যরা নিয়োগের বিষয়ে জানতে চাইলে বিবাদী স্কুটির প্রধান শিক্ষক (সদস্য সচিব) এবং ৪ নং দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ আমাদের সাথে কর্কশভাষা ব্যবহার করে ক্ষমতার উচ্চ বাচ্য বাক বিতাণ্ডে লিপ্ত হন। নিরুপায় হয়ে আমি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু বকর সিদ্দিক সহ অন্যান্য সদস্যেরা মিলে হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ৪ নং দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আবুল জালাম আজাদ,সোনাতনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (সদস্য সচিব) এবং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার দ্বয়কে হরিণাকুণ্ডু বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালতে দেওয়ানী কার্যবিধি ৩৯ রুলে ১ ও ১৫১ ধারায় অবৈধ নিয়োগের বিরুদ্ধে মোকর্দ্দমা দায়ের করি। বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু বকর সিদ্দিক আরও বলেন নিয়োগ বানিজ্য বন্ধ করতে হবে।নিয়মতান্ত্রিক পন্থায় এই নিয়োগ হোক মেধাবীরা নিয়োগ পাক দুর্ণীত নিপাত যাক।
সোনাতনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৩ টি পদে নিয়োগের নিষেধাজ্ঞা চেয়ে ম্যানেজিং কমিটি’র ৩ জনকে বিবাদী করে মামলা হয়েছে বলে জানান ঝিনাইদহ জেলা জজ কোর্টের( এডভোকেট) মোঃ আজিজুর রহমান(৩)।এদিকে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক (সদস্য সচিব) এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি সাংবাদিকের সাথে কোনও বক্তব্য দেন না। আমাদের যা বলার কোর্টে বলবো বলেও জানান তিনি।

এ ঘটনায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান,আমি অক্টোবর ২২ হরিণাকুণ্ডুতে যোগদান করি। সোনাতনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কিসের নিয়োগ হচ্ছে তা আমার জানা নেই। তিনি আরও বলেন কবে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পত্রিকাতে দিয়েছে সেটাও আমার জানা নেই।

হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ৪ নং দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও সোনাতনপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ আবুল জালাম আজাদ,মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে সাংবাদিকদের জানান,কমিটির সদস্যদের স্বাক্ষর করেই এই নিয়োগ প্রক্রিয়া করা হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর