হরিণাকুণ্ডু বাজারে দিনেদুপুরে ছুরিকাঘাতে ব্যবসায়ী খুন

হরিনাকুন্ড (ঝিনাইদহ) থেকে বাচ্চু মিয়া
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ১৮৪ বার পঠিত

 

ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু বড় বাজারে দিনেদুপুরে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বুকে ছুরুকাঘাতে খুন হলো এক মোবাইল ব্যবসায়ী।
সোমবার দুপুর আনুমানিক ২টার দিকে এই হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে।
নিহত হামিদুল ইসলাম জনি(২৭) তাহেরহুদা ইউনিয়নর আদর্শ আন্দুলীয়া গ্রামের আতিয়ার রহমানের ছেলে। খবর পেয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ(ওসি) সাইফুল ইসলাম, পলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) আক্তারুজ্জামান লিটন, সেকেন্ড অফিসার দীপ্তেশ রায় ঘটনাস্থলে ছুটে যান, সুরতহাল শেষে লাশ উদ্ধারকরে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহে প্রেরণ করা হয়।
জানা যায় গত ৭ মাস পূর্বে জনি বড় বাজারে কাসাই খানার মেড়ে মোবাইলের দোকান দেয়, তার প্রতিষ্ঠানের নাম মুন্সী মোবাইল হাউজ।
নিহত হামিদুল ইসলাম জনি,র আপন ভাই কাব্বারুল ইসলাম জানান গত কিছুদিন পূর্বে আন্দুলীয়া গ্রামের আফজাল হোসেনের পুত্র অপু আমার ছোট ভাই জনির ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে দুইটি মোবাইল বাকীতে ক্রয় করে, গত বৃহস্পতিবার বাকী টাকা চাওয়াকে কেন্দ্রকরে অপু সহ ঐ গ্রামের অন্য একজন ছেলের সাথে কথাকাটাকাটি হয় , একপর্যায়ে তার জেরধরে আজ সোমবার দুপুরে তাকে হত্যা করা হয়।
তিনি আরও জানান সোমবার দুপুর পনে দুইটার দিকে জনি বাজারে অবস্থিত আমার নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আধুনিক ঘড়ি ঘরে আসে এবং মোবাইল কোম্পানীর টাকা দেওয়ার জন্য ৩০ হাজার টাকা চায়, যেহেতু রাতে আমি ঢাকায় ব্যবসার কাজে যাবো তাই ভাইকে টাকা দিতে পারিনি, এর কিছুক্ষণ পরেই আমার ভাইকে হত্যাকরা হয়। আমার দুঃখ্য আমার ভাইয়ের শেষ চাওয়াটা রাখতে পারিনি।
নিহিত জনির বড়ভাই মাঝারুল ইসলাম বাকু ও মেজ ভাই কাব্বারুল ইসলাম হরিণাকুণ্ডু থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, ঝিনাইদহ শৈলকুপা সার্কেল অমিত বর্মণের আসু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে, এবং এ ঘটনায় জড়িতদের তদন্ত পূর্বক আইনের আওতায় আনতে জোর দাবী জানিয়েছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর