উলিপুরে নৌকা পুড়িয়ে ফেলার অভিযোগ

নয়ন দাস, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১৮০ বার পঠিত

 

কুড়িগ্রামের উলিপুরের দূর্গাপুর ইউনিয়নে রাতের আধারে ইউপি নির্বাচনের প্রচারণায় ব্যবহৃত প্রতীকী নৌকা পুড়িয়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে। মধ্যরাত পর্যন্ত নৌকাটিকে অক্ষত দেখলেও সকালে নৌকাটিকে পোড়ানো অবস্থায় গাছে ঝোলানো অবস্থায় দেখতে পায় এলাকাবাসী। এ ঘটনায় ইউনিয়নটির নৌকার প্রার্থী শঙ্কিত বোধ করছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

২১ ডিসেম্বর(মঙ্গলবার) ভোর রাতে দূর্গাপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের অর্জুনডারা গ্রামের অর্জুনডারা ব্রিজের সংলগ্ন কুড়িগ্রাম-চিলমারী সড়কে এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে নৌকার প্রার্থীর নেতৃত্বে একটি প্রতিবাদ মিছিল করে নৌকার কর্মী-সমর্থকরা। এই ঘটনার পর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঘটনাস্থলে পুলিশ সদস্য মোতায়ন করা হয়েছে।

দূর্গাপুর ইউনিয়নের নৌকা মার্কার প্রার্থী মো. খায়রুল ইসলাম বাবলু সরকার বলেন, গতকাল রাত ১২টার পর নির্বাচনী সভা শেষ করে যখন বাড়ি ফিরছিলাম তখন আমাকে একটি মোটরসাইকেলের বহর অনুসরণ করে।

এরপর আমি বাড়িতে গেলে একটি মোটরসাইকেলের বহর রাত ১টার পর অর্জুনডারা ব্রিজের কাছে এসে অবস্থান নেয়। সকালে আমার কাছে খবর আসে রাস্তায় ঝুলানো একটি নৌকা পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শান্তি দাবি করছি।

বাবলু সরকার আরও বলেন, নির্বাচনের মাত্র কয়েকদিন আগেই এমন কর্মকাণ্ডে আমি শঙ্কিত। গতরাতে আমার উপর হামলার চেষ্টা করা হয়। রাতে নৌকা পোড়ানো হয়। এব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের করার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

স্থানীয় বাসীন্দা মো. আব্দুল কাউয়ুম বলেন, রাত ১টার দিকে নৌকাটিকে আমি অক্ষত অবস্থায় দেখি। এরপর সকল সাড়ে ৬ টার দিকে নৌকাটিকে পোড়ানো অবস্থায় রাস্তার একপাশে ঝোলানো অবস্থায় দেখতে পাই। কে বা কারা নৌকা পুড়িয়েছে সেটা দেখতে পারিনি।

এব্যাপারে দূর্গাপুর ইউনিয়নের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উলিপুর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আহসান হাবিবের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এব্যাপারে উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমতিয়াজ কবির বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এখনও কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর