এখনকার রাজনীতিবিদদের কথাবার্তা রিকশাচালকের মতো: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১২৫ বার পঠিত

এখনকার দিনের রাজনীতিবিদরা রিকশাচালকের মতো কথাবার্তা বলছেন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, রাজনীতিতে ভিন্নমত খুবই স্বাভাবিক ব্যাপার। ভিন্নমত থাকবেই। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, আমাদের দেশে রাজনৈতিক অসহিষ্ণুতা বেড়ে গেছে।তিনি বুধবার ঢাবির টিএসসি মিলনায়তনে ঢাকা ইউনিভার্সিটি পলিটিক্যাল সাইন্স ডিপার্টমেন্ট অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন (ডিইউপিডিএএ) আয়োজিত পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন।কাদের পরস্পরের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি করতে রাজনীতিবিদদের প্রতি আহ্বান জানান।

সেতুমন্ত্রী বিভক্তির রাজনীতি পরিহার করে সুস্থ রাজনীতিতে ফিরে আসার জন্য তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘আমরা নিজেদের মধ্যে সম্পর্কের সেতু তৈরির পরিবর্তে অসহিষ্ণুতার দেয়ার তৈরি করছি।’তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের মধ্যে আবার সহিষ্ণুতা ফিরিয়ে আনতে হবে। বিভেদের সংস্কৃতি হ্রাসে পরস্পরের মধ্যে সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলা অত্যন্ত জরুরি।ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য হবে। আমরা আশা করছি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলসহ (বিএনপি) বিভিন্ন রাজনৈতিক দল এই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে অংশ নেবে। আগামী ৩০ জানুয়ারি এই নির্বাচনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়েছে। আমরা এই নির্বাচনে বিএনপিকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। আমরা আশ্বস্ত করছি এটা অবাধ, সুষ্ঠু ও সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচন হতে যাচ্ছে।যেই জয়লাভ করুক, আর যেই পরাজিত হোক নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যদি আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী নির্বাচনে পরাজিত হয়, তবে তা সরকারের জন্য বড় কোন সমস্যা হিসেবে দেখা দিবে না।তিনি আশ্বস্ত করেন, নির্বাচন কমিশন যেন স্বাধীনভাবে তার দায়িত্ব পালন করতে পারে, সরকার সে জন্য সব ধরনের সহযোগিতা করে যাবে।মন্ত্রী বলেন, ‘মেট্রোরেল একটি পরিবেশ-বান্ধব প্রকল্প। সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। রাজধানীতে ছয়টি মেট্রোরেল প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ২০৩০ সাল নাগাদ ঢাকার অবস্থা পাল্টে যাবে।’অসুস্থতা থেকে সুস্থ হয়ে ফিরে এলে যারা শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি জীবনের শেষ ভাগে পৌঁছে গিয়েছিলাম। আমি অলৌকিকভাবেই আবার ফিরে এসেছি। আপনাদের দোয়া ও ভালোবাসার কারণেই এটা সম্ভব হয়েছে।’ডিইউপিডিএএর সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাবেক এমপি নাজমুল হক প্রধান, যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত মো. হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর