কাঁচা চামড়া বিদেশে রফতানীর বিষয়টি সক্রিয় ভাবে বিবেচনা করতে হবে – গোলাম মোহাম্মদ কাদের

নিজস্ব প্রতিনিধি
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৭ জুলাই, ২০২০
  • ৬৩৫ বার পঠিত

কাঁচা চামড়া বিদেশে রফতানীর বিষয়টি সক্রিয় ভাবে বিবেচনা করতে হবে – গোলাম মোহাম্মদ কাদের

ঢাকা, ১৭ জুলাই-২০২০ইং শুক্রবার।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেছেন, সরকারকে কাঁচা চামড়া বিদেশে রফতানীর বিষয়টি সক্রিয় ভাবে বিবেচনা করতে হবে। তিনি বলেন, কাঁচা চামড়া বিদেশে রফতানীর অনুমতি না থাকায় কোরবানীর ঈদে দেশের চামড়া ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে স্বল্পমূল্যে চামড়া ক্রয় করে। খুচরা ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে অসাধু ব্যবসায়ীরা অধিক মুনাফার করে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় দেশের এতিম ও হতদরিদ্র মানুষ।

আজ বেলা ১১টায় জাতীয় পার্টি কাকরাইল কেন্দ্রীয় কার্যালয় মিলনায়তনে পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষ্যে জাতীয় যুব সংহতি আয়োজিত খতমে কোরআন ও স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, কোরবানীর ঈদের চামড়ায় এতিমদের অধিকার রয়েছে। কোরবানীর চামড়া থেকে আয় দিয়ে দেশের অনেক এতিমখানা ও মাদ্রাসা পরিচালিত হয়। কিন্তু বাংলাদেশেরে চামড়ার ব্যবসা কিছু সংখ্যক অসাধু ব্যবসায়ী নিয়ন্ত্রণ করে। কাঁচা চামড়া বেশি দিন সংরক্ষণ করা যায়না, আবার চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণ এর মেশিনও আছে শুধু ঐ সিন্ডিকেটের হাতেই। তাই অসাধু ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের কাছে কাছে লুট হয়ে যায় এতিমদের হক।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, কাঁচা চামড়া বিদেশে রফতানীর অনুমতি থাকলে বিদেশীরা বাংলাদেশের চামড়া কিনতে আসবে। এতে কাঁচা চামড়ার বাজারে প্রতিযোগিতা তৈরী হবে। এতিম ও হতদরিদ্ররা কোরবানীর চামড়ায় প্রকৃত দাম পাবেন। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, বিদেশীরা যদি বেশি দামে চামড়া কিনে ব্যবসা করতে পারে, তাহলে দেশের চামড়া ব্যবসায়ীরা কেন প্রকৃতমূল্যে চামড়া কিনে ব্যবসা করতে পারবেনা। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আর্কষণ করেছেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের।

জাতীয় যুব সংহতি সভাপতি আলমগীর সিদার লোটন এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আহসান শাহাজাদা এর পরিচালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মীর আবদুস সবুর আসুদ, উপদেষ্টা ড. নুরুল আজহার, সম্পাদক মন্ডলীর সুলতান মাহমুদ, জহিরুল ইসলাম মিন্টু, বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. ইসহাক ভুইয়া, আল জুবায়ের, আব্দুস সাত্তার গালিব, আবু সাদেক সরদার বাদল, শাহজাহান কবির, মাহমুদ আলম, সমরেশ মন্ডল মানিক, ডা. মো. আব্দুল্লাহ আল ফাত্তাহ, কেন্দ্রীয় নেতা- মিয়া আলমগীর, খলিলুর রহমান সিদ্দিকী, গাজী এমএ সালাম, শেখ সারওয়ার, আজিজুল হুদা চৌধুরী সুমন, যুবনেতা, ওবায়দুর রহমান ভুইয়া, নান্নু, রিপন, সাইফুল প্রমুখ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর