কুষ্টিয়ায় গৃহকর্মীর রহস্যজনক মৃত্যু : সন্দেহ হওয়ায় লাশ ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৫ আগস্ট, ২০২২
  • ২৯২ বার পঠিত

 

কুষ্টিয়া, ১৫-৮-২২ ইং : কুষ্টিয়ার শহরতলীর আলফা মোড়স্থ পশ্চিম মজমপুর এলাকার একটি ভাড়া বাসায় রেখা খাতুন-৩০ নামের এক গৃহকর্মীর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। নিহত রেখা খাতুন (৩০) কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিপুর শালদাহ গ্রামের মৃত আইনাল শেখ এর মেয়ে।

নিহতের মা ফরিদা খাতুন জানান, আমার জামাই আলিম একজন নেশা ক্ষোর। দীর্ঘ ৩ বছর সে আমার মেয়ের সাথে যোগাযোগ করেনা। বর্তমানে আমার মেয়ে তার ৩ বছররে শিশু সন্তান নিয়ে আলফার মোড় সংলগ্ন বিল্লাল এর বাড়িতে ভাড়া থাকত এবং মানুেষর বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করত। হটাৎ আজ সকালে বাড়ির মালিক বিল্লাল আমাকে কল দিয়ে বললো আপনার মেয়ে রেখা অসুস্থ হয়ে গেছে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছি আপনি তড়িৎ আসেন। একটু পড়ে আবার কল দিয়ে বলে তাড়াতাড়ি হাসপাতালে আসেন আপনার মেয়ে রেখা মারা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়দের বরাতে জানা যায়, নিহত রেখা খাতুন তার শিশু সন্তানকে নিয়ে আলফার মোড় সংলগ্ন বিল্লাল এর বাড়িতে ভাড়া থাকত এবং মানুেষর বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করত। আলীম ছিল তার দ্বিতীয় স্বামী। রেখার আগের পক্ষের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

সোমবার সকালে বাড়ি আলার লোকজন রেখাকে অসুস্থ অবস্থায় ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার রেখাকে মৃতঘোষনা করে। পরে রেখার লাশ নিয়ে ডাক্তারের সন্দেহ মনে হলে মেডিকেল বোর্ড গঠন করে ময়নাতদন্তের সিধান্ত নেন হাসপাতাল কতৃপক্ষ । এতে রেখার স্বজনরা ডাক্তারের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে গালাগালি করতে থাকে এক পর্যায়ে ডাক্তারের উপরে রেখার স্বজনরা চড়াও হলে হাসপাতালে কর্মরত উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা এসে ঐই ডাক্তার কে উদ্ধার করে। পরে রেখার লাশ ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ দেলোয়ার হোসেনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, মৃত্যুর সঠিক কারণটা নির্ণয় করার জন্য আমরা ময়নাতদন্ত করেছি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে তারপর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

এঘটনায় কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। যাহার নং-১০৪, তাং-১৫-৮-২০২২

 

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর