কুষ্টিয়ায় সুজন হত্যা মামলার মৃত্যুদন্ড আসামী গ্রেফতার

কে এম শাহীন রেজা কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি।।
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২২
  • ১১৫ বার পঠিত

 

 

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ইজিবাইক চালক সুজন সিকদারকে হত্যা করে ইজিবাইক ছিনতাইয়ের দায়ে মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত পলাতক রাকিবুল ইসলাম ওরফে আসাদ(৩৬)কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রবিবার বেলা ১১টায় র‌্যাব-১২ কুষ্টিয়া ক্যাম্পে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১২র কমান্ডিং অফিসার অতিরিক্ত ডিআইজি মারুফ হোসেন জানান, শনিবার রাতে ঢাকার সাভার এলাকায় গাড়ি ছিনাতাই চক্রের অপরাধীদের গ্রেফতারে অভিযান চলাকালে রাকিবুলকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ এবং তার সম্পর্কে তদন্ত করে জানা যায় তিনি ছিনতাই ও হত্যাদায়ে আদালত কতৃক সাজাপ্রাপ্ত।

গ্রেফতার রাকিবুলের মামলা সংক্রান্ত সূত্রমতে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৮ মার্চ দুপুরে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার জগতি গ্রামের বাসিন্দা মুনজিল সিকদারের ছেলে ইজিবাইক চালক সুজন সিকদার (২৮)কে ইজিবাইকসহ অপহরণ করে ভেড়ামারা উপজেলার সাতবাড়ীয়া গ্রামের হাশেম আলীর লিচু বাগানে সুজনের গলাকাটা রক্তাক্ত মৃতদেহ ফেলে রেখে যায়। এঘটনায় নিহতের ভাই আলমগীর সিকদার ভেড়ামারা থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক মহানন্দ সিং ২০১৭ সালের ১০ জানুয়ারী হত্যাকান্ডে জড়িত অভিযোগ এনে ৩জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করে আদালতে।

গত ৪ অক্টোবর এমামলার বিচারকার্য সম্পন্ন করে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ অতিরিক্ত আদালত-১র বিচারক মোঃ তাজুল ইসলাম দুই আসামীর উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষনা করেন। এই সময়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামী রাকিবুল ইসলাম ওরফে আসাদ আদালতে উপস্থিত না হয়ে পলাতক ছিলেন। এমামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত অপর দুই আসামী শরিফুল(৩১) ও রাজু মোল্লা (২৬) রায় ঘোষনার পর থেকে কুষ্টিয়া জেলা কারাগারে সাজাভোগ করছেন। গ্রেফতার রাকিবুল ইসলাম ওরফে আসাদ (৩৬) কুস্টিয়া সদর উপজেলার আলামপুর দত্তপাড়া গ্রামের বাসিন্দা খন্দকার ইউনুস আলীর ছেলে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর