কোতোয়ালি থানা পরিদর্শনে বুক কর্ণার,মটরসাইকেল শেড উদ্বোধন করলেন পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা

মোঃ শহিদুল ইসলামঃ স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ, ২০২৩
  • ৫৯ বার পঠিত

 

ময়মনসিংহের কোতোয়ালি মডেল থানা পরিদর্শন, সর্বসাধারণের জন্য বুক কর্ণার, মোটরসাইকেল শেড উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা।
এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল শাহীনুল ইসলাম ফকির সহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ সাথে ছিলেন।
থানায় আসা সেবা প্রত্যাসীরা বসে থেকে যাতে অলস সময় পার করে বিরক্তিবোধ না হয় সেই লক্ষ্যে সেবা প্রত্যাশীদের জন্য কোতোয়ালি মডেল থানায় বুক কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া থানার অফিসার ফোর্স সহ আগত জনসাধারণ যাতে নিরাপদে তাদের মোটরসাইকেল রাখতে পারে সেই লক্ষ্যে মোটরসাইকেল শেড নির্মাণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার থানা পরিদর্শনের পাশাপাশি বুক কর্ণার ও মোটর সাইকেল শেড উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার। এখন থেকে থানায় বসে অলস সময় পার করতে হবে না সেবা প্রত্যাশীদের। এখন থেকে থানায় বসে বই পড়ে সময় পার করতে পারবেন থানায় আসা সকল সেবা প্রত্যাশীরা। কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের ব্যতিক্রমী উদ্যোগে থানা ভবনে”বুক কর্ণার” উদ্বোধনের মাধ্যমে সৃষ্টিশীলতায় পরিচয় দিয়েছেন কোতোয়ালী থানা পুলিশ।
জেলায় ও ময়মনসিংহ রেঞ্জে বার বার শ্রেষ্ঠ এবং দায়িত্বশীল মানবিক ওসি শাহ কামাল আকন্দ কোতোয়ালি মডেল থানায় দীর্ঘ সময় চাকুরীকালীন সময়ে দেখতে পান থানায় সেবা নিতে সেবা গ্রহিতারা বসে বসে অলস সময় পার করছেন।
খোজ খবর নিয়ে জানা গেছে, কোতোয়ালি মডেল থানার অফিসারগণ তাদের দায়িত্ব পালনে থানার বাইরে বেশির সময় ব্যস্ত থাকেন। এই ফাঁকে অনেক সেবা গ্রহিতা তাদের নির্ধারিত পুলিশ কর্মকর্তার জন্য অপেক্ষায় অলস সময় পার করেন। দুরদুরান্ত থেকে আসা সেবা গ্রহিতারাও কর্তা ব্যক্তির সাথে সাক্ষাৎ করে মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে কিছু না বলে ফেরত যেতে রাজি নয়। এই সময়ে তারা অলস বসে থাকেন।
চৌকস দায়িত্বশীল কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ বিষয়টি গুরুত্ব অনুদাবন করে বুক কর্ণার স্থাপন করে অলস সময় পার করা মানুষদের কিছুটা হলেও প্রশান্তি দিতে চেষ্টা করেন। এই লক্ষে তিনি ব্যক্তিগত উদ্যোগে কোতোয়ালি মডেল থানায় বুক কর্ণার স্থাপন করে আবারো নজির সৃষ্টি করলেন।

কোতোয়ালি মডেল থানার “বুক কর্ণারে” রয়েছে যতীন সরকার, হুমায়ুন আহমেদ, আবুল মনসুর আহমদ, অদ্বৈত মল্ল বর্মন, শেখ মুজিবুর রহমান, জয়িতা শিল্পীদের মতো প্রখাত লেখক ও উপন্যাসিকদের বইসমূহ। এছাড়াও এখানে রয়েছে বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর আত্মজীবনীসহ নানা ধরনের মূল্যবান সব বই।

এ ধরনের ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন থানায় উপস্থিত সেবা প্রত‍্যাশীদের অনেকেই। তাছাড়া বই আত্মশুদ্ধি ও চেতনার উন্মেষ ঘটায় বিধায় শুধু সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নয়, পাড়ায় মহল্লায় এহেন সময়োপযোগী ও ব্যতিক্রমী প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার আহ্বান জানান সচেতন মহলের লোকজন। কথায় আছে , যার একটি পাঠাগার আছে, তিনি একটি সুন্দর পৃথিবীর মালিক। সেই প্রত্যাশা পুরণ করতে ব্যাতিক্রমী এই উদ্যোগ নিয়েছেন কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ কামাল আকন্দ।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর