গাংনীতে খুন করার হুমকিতে থানায় ডায়েরি করলেন প্রবাসির স্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১৭ আগস্ট, ২০২২
  • ২৭৯ বার পঠিত

 

মেহেরপুরের গাংনীতে খুন জখমের হুমকিতে নিজ ও পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য থানায় সাধারণ ডায়েরি করলেন প্রবাসির স্ত্রী।
গাংনী উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের গোপালনগর গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে আনেছ কর্তৃক খুন ও জখমের অভিযোগ এনে এ ডায়েরি করেন একই গ্রামের এক প্রবাসির ভুক্তভোগীর স্ত্রী।
মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট), সন্ধার দিকে গাংনী থানায় উপস্থিত হয়ে এ ডায়েরি করেন তিনি।
উল্লেখ্য, বিদেশ যাবার উদ্দেশ্যে ধার হিসেবে টাকা নিয়ে সুদে আসলে সে টাকা পরিশোধ করলেও আবারও অতিরিক্ত টাকার দাবিতে গত ৭ আগস্ট গাংনী-হাটবোয়ালিয়া সড়কের গাংনী পাইলট স্কুল এন্ড কলেজের সামনে অগ্রনী ব্যাংক এর নিচে জনসম্মুখে প্রবাসির স্ত্রীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে গাংনী উপজেলার গোপালনগর গ্রামের আনেছ (৪০) নামের এক মাছ ব্যবসায়ী। এনিয়ে গাংনী থানায় দু’পক্ষকে নিয়ে সালিশ বৈঠকও অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে আনেছ কে সতর্ক করা হয়েছে উক্ত নারীকে কোনরকম ভয়ভীতি প্রদর্শন না করার জন্য। কিন্তু প্রশাসনের সতর্কতা কর্নপাত না করে আনেছ খুন ও জখমের হুমকি দিয়ে আসছেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে উক্ত প্রবাসির স্ত্রী নিজ ও পরিবারের সদস্যদের জানমালের নিরাপত্তার জন্য থানায় ডায়েরি করতে বাধ্য হয়।
ভুক্তভোগী প্রবাসির স্ত্রী জানান, ৫ বছর পূর্বে স্বামী বিদেশ যাওয়ার সুবাদে গোপালনগর গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী আনেছ এর কাছ থেকে ১ লাখ টাকা ধার নিই এবং সুদে আসলে কয়েক কিস্তিতে পরিশোধ করলেও আনেছ আমাকে ব্লাকমেইল করে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আরও টাকার দাবি করেন। আমি ও আমার ছেলেকে মেরে ফেলা ও গুম করাসহ আমার মুখে এসিড নিক্ষেপ করার হুমকি প্রদর্শণ করেন। এসব হুমকি প্রদান ও ব্লাকমেইল করে ফাকা স্ট্যাম্পে আমার সিগনেচারও করিয়ে নেন। যেখানে নিজের মতো লিখে নেন আমার কাছে টাকা পাবেন বলে। যেখানে আনেছের সাথে থাকা আরও ৩ জন মাছ ব্যবসায়ীকে সাক্ষী হিসেবে রাখেন। পরে গাংনী থানার এস আই (নিঃ) মোঃ সইবুর রহমান তা যাচাইয়ে স্ট্যাম্প কার নামে, কে এবং কত তারিখ, কোথা থেকে ক্রয় করেছেন তার কোন উল্লেখ পাননি।
ভুক্তভোগী প্রবাসির স্ত্রী জানান, আনেছ তার মন গড়া সাক্ষীর নাম উল্লেখ করে গত ১৮ জুলাই ২০২১ সাল বসিয়ে ফাঁকা স্ট্যাম্প লিখে নেন। তাতে কি লেখা রয়েছে সে বিষয়ে আমি অবগত নই, আমার পক্ষের কোন সাক্ষীর সিগনেচারও নেই।
ভুক্তভোগী অভিযোগ করে বলেন, আনেছ আমাকে ব্লাকমেইল করে বিভিন্ন সময়ে আমার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা দাবি করে, যা পূরণে আমি আজ পথে বসে গেছি। সর্বশেষ কি পেলে সে আমাকে মুক্তি দেবে বললে সে আরও ৪ লাখ দাবি করলে ব্যাংক থেকে লোন তুলে তাকে তাও পরিশোধ করি। তখন লিখিত স্ট্যাম্প ফেরত চাইলে সে তা দিতে গড়িমসি করে। এসময় আমিও টাকা না দিলে সে স্ট্যাম্পের পরিবর্তে দু’টি ব্যাংক চেক আমায় দেন এবং টাকা নেন।
এব্যাপারে মাছ ব্যবসায়ী আনেছ জানান, আমি সরল মনে বিভিন্ন সময়ে তাকে টাকা দিই। সেও আমাকে সে টাকা ফেরত দেয়। কিন্তু পরবর্তীতে ধাপে ধাপে কিছু টাকা নিয়েছে যা পরিশোধ করেননি। তবে টাকা দেওয়ার কোন প্রমাণ আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি কোন প্রমাণ দেখাতে পারেনি।
ভুক্তভোগী প্রবাসির স্ত্রী আরো বলেন, আনেছ আমাকে ব্লাকমেইল করে বার বার মোটা অংকের টাকা নিয়ে আমাকে নিঃস্ব করেছে। অগ্রনী ব্যাংকে টাকা ওঠাতে গেলে আনেছ তার সঙ্গীদের নিয়ে আমার গতিরোধ করে এবং জনসম্মুখে আমাকে ধরে টানাটানি শুরু করে এবং মারধরের ঘটনাও ঘটে। এসময় আমাকে খুন করার হুমকি প্রদান করেন। পরে পুলিশকে ফোন করা হলে গাংনী থানা পুলিশের এস আই (নিঃ) মোঃ সইবুর রহমানের নেতৃত্বে থানা পুলিশের একটি টিম এসে হেনস্থাকারী বখাটে আনেছের হাত থেকে আমাকে উদ্ধার করেন। এসময় আমাকে থানায় লিখিত অভিযোগ জানাতে পরামর্শ দেন। যার পরিপ্রেক্ষিতে আমি আনেছের নামে থানায় অভিযোগ করি। এনিয়ে গত শুক্রবার বিকেলে গাংনী থানায় সালিশ বৈঠক বসলে আনেছকে থানা থেকে আমাকে হুমকি ধামকি প্রদানে সতর্ক করেন। এসময় গাংনী পৌরসভা ও গোপালনগর গ্রামের ইউপি সদস্য, সাক্ষীগণ ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বৈঠকে উপস্থিত জনসম্মুখে এস আই (নিঃ) মোঃ সইবুর রহমান আনেছকে সতর্ক করে বলেন, আবারও কোন ধরনের অঘটন কিংবা ভুক্তভোগীকে হয়রানি করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কিন্তু আনেছ তা অমান্য করে তার বন্ধুদেরকে আমার নামে বদনাম রটানোর কাজে লাগিয়েছে। একইসাথে আমাকে ও আমার ছেলেকে খুন ও জখম করার হুমকি প্রদান অব্যাহত রেখেছে। আমার ছেলের ক্ষতি এড়াতে বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা নিজ দায়িত্বে ছুটি শেষে ছেলেকে বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন। বিভিন্ন হুমকিতে আমার নাওয়া খাওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। এমতবস্থায় আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তার জন্য গাংনী থানায় সাধারণ ডায়েরি করে রাখলাম। এব্যাপারে তিনি প্রশাসনের আশু দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর