গাংনীতে শিশু অপহরণের সময় একজনকে গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে সোপর্দ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৭ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭২৫ বার পঠিত

 

রুটি,সন্দেশ ও সরকারি বাড়ি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে শিশু কণ্যাকে অপহরণের সময়

মেহেরপুরের গাংনীর এলাঙ্গী গ্রামে মকবুল হোসেন(৫২) নামের একজনকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয় জনতা। অপরহণকারী ব্যাক্তি গাংনীর মাঠ পাড়ার সুরমান আলীর ছেলে। আজ বৃহষ্পতিবার (৭অক্টোবর) দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
শিশুকণ্যার পিতা ইয়াকুব আলী জানায়, তার শিশু কণ্যা নুসরাত জাহান (৯)বাড়ির পাশে খেলা করছিল। এসময় মকবুল হোসেন নামের ওই ব্যাক্তি আমার মেয়েকে পাউরুটি,সন্দেশ খাওয়ার জন্য দেয়। পড়ে ৭০ টাকা হাতের মুঠোই গুঁজে মোটর সাইকেলে চড়তে বলে। সে না উঠতে চাইলে জোর করে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে গাংনীর উদ্দেশ্যে রওনা হয় মকবুল হোসেন। অনেক সময় পর বাড়িতে নুসরাতকে না পেয়ে আমাদের লোকজন বিভিন্ন এলাকায় খুঁজতে থাকে। একপর্যায়ে গাংনীর রাইপুর নামক বাজারে জনগন তাকে আটক করে। এসময় ইয়াকুব হোসেনের ব্যাগের মধ্যে পাউরুটি ও মোটর মেরামতের বিভিন্ন সরঞ্জাম পাওয়াই গণধোলাই দেয় স্থানীয় জনতা।

গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান, এলাঙ্গী গ্রামের ইয়াকুব আলীর তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া শিশু কন্যা নুসরাতকে মিষ্টি ও পাউরুটির প্রলোভন দিয়ে নিজ মোটর সাইকেলে তুলে নেয় মকবুল হোসেন। এলাঙ্গী থেকে তুলে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘুরিয়ে রাইপুর বাজারে নিয়ে আসে। নুসরাতের পরিবারের লোকজন নুসরাতকে না পেয়ে খুজতে বের হয় এবং মকবুল হোসেনকে ধরে ফেলে। তাকে স্থানীয় এলাঙ্গী ক্যাম্পের সামনে নিয়ে লোকজন গণপিটুনী দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধিন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর