গাংনীর সেই ফুফু শাশুড়ীকে মারধরের ঘটনায় বকতিয়ার জেল হাজতে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৩৫৬ বার পঠিত

মেহেরপুর গাংনী উপজেলার সহড়াতলা গ্রামের ভানুয়ারাকে মারধরের ঘটনায় মোঃ বকতিয়ার কে জেল হাজতে পাঠিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত বৃহস্পতিবার( ১ সেপ্টেম্বর)২০২২ ইং জানা যায় ভানুয়ারাকে মারধরের বিষয়ে গাংনী থানায় একটি মামলা করেছিলো সেই মামলায় পারিবারিক শালিশের মাধ্যমে মিমাংসার কথা থাকলেও মামলার বাদিকে মিমাংসার জন্য ডাকা হয় নাই আজ বকতিয়ার হাজিরা দিতে গেলে পুনরায় বকতিয়ার কে জেল হাজতে পাঠায়।

 

গাংনী উপজেলার সহড়াতলা গ্রামের ভানুয়ারা খাতুনকে নির্যাতনকারী সেই বখতিয়ারকে গ্রেফতার করে গাংনী থানা পুলিশ।

(৫ জুলাই) দিবাগত রাতে গাংনী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্সসহ তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বখতিয়ার রহমানকে গ্রেফতার করে। বখতিয়ার রহমান গাংনী উপজেলার সহড়াতলা গ্রামের মুক্তার আলীর ছেলে। এসআই আতিকুর রহমান জানান, গ্রেফতারকৃত বখতিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে ভানুয়ারা খাতুন নামের একজন নারীকে মারধরের অভিযোগে তার স্বামী সামছুল হক বাদী হয়ে ৩২৩/৩২৫/৩০৭/৫০৬/১১৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ১২, তারিখ ০৫/০৭/২০২২ইং।

 

 

উল্লেখ্য, গত ২ জুলাই বকতিয়ার রহমান তার ফুফু শাশুড়ি ভানুয়ারা খাতুনকে আম চুরির মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মারধর করে আহত করে। এঘটনায় আহত ভানুয়ারা গাংনী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। গাংনী থানা পুলিশের এএসআই মোহাম্মদ আলী ঘটনার তদন্ত করতে যান গ্রামে। এই ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে বকতিয়ার বৃহম্পতিবার আবারো ভানুয়ারা কে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। এসময় স্থানীয়রা ভানুয়ারা খাতুনকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর