প্রবাসির স্ত্রীকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৬৮৭ বার পঠিত

মেহেরপুর গাংনী উপজেলার কাষ্টদহ গ্রামে রাতের আঁধারে পরকীয়ার অভিযোগে লিটন হোসেন ২৮ নামে এক যুবক ও এক প্রবাসীর স্ত্রী ছনিয়াকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রবাসি হানিফের পিতা খয়ের আলী নিজ ঘরে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে। গ্রাম বাসিকে জানালে তাদের দুজনকে আটক করে গাংনী থানা পুলিশে সোপর্দ করে।

আটককৃত ছনিয়া প্রবাসি হানিফের স্ত্রী ও একই গ্রামের হামিদুল ইসলামের ছেলে লিটন।

বর্তমান গাংনী থানায় দুজন আটক রয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার কাষ্টদহ গ্রামের কাতার প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে লিটন হোসেন দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়ার সম্পর্ক চলছিল।

এ সম্পর্কের জের ধরে লিটন শুক্রবার রাত টার দিকে গোপনে দেখা করার জন্য ওই প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে যায়। এ বিষয়টি টের পেয়ে হানিফের বাবা খয়ের আলী ঘরের মধ্য আপত্তিকর অবস্থায় দেখে স্থানীয় লোকজন প্রেমিক লিটন ও প্রবাসীর স্ত্রীকে আপত্তিকর অবস্থায় ওই ঘরের মধ্যেই আটক করে রাখে। পরে গাংনী থানা পুলিশের হাতে তাদের দুজনকেই সোপর্দ করেন স্থানীয় লোকজন। গাংনী থানা পুলিশ পরকীয়ার অপরাধে লিটন ও প্রবাসীর স্ত্রী ছনিয়াকে আটক রেখেছে।

স্থানীয় বেশ কয়েকজন বলেন, লিটন ওই প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার জের ধরে অনৈতিক কর্মকান্ড করার সময় এলাকাবাসী তাদের দুজনকে আটক করেন। পরে তাদের দুজনকেই পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়। কাতার প্রবাসী হনিফ বলেন, আমার অনুপস্থিতিতে লিটন ও আমার স্ত্রী দুজনে মিলে অবৈধ সম্পর্ক করে আসছে। আমি তাদের দৃষ্টান্তমুলক বিচার চাই।

এ ব্যাপারে উপজেলার গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমানের সাথে এবিষয়ে জানতে চাইলে ফোন রিসিভ করেনি।

লিটন মাহমুদ
মেহেরপুর ১১/০৯/২১
মোবাইল ০১৯১৯৭১১০৭৮

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর