ভাটপাড়া ডিসি ইকোপার্কে টিকিট নেওয়ায় বিনোদন প্রেমীদের ক্ষোভ প্রকাশ

মানবী,মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১১ জুলাই, ২০২২
  • ৯৪ বার পঠিত

 

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ঐতিহাসিক ভাটপাড়া ডিসি ইকোপার্কে টিকিট নেওয়ায় দর্শনার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সোমবার (১১ জুলাই), ভাটপাড়া ডিসি ইকো পার্কে সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, আনসার সদস্যের মাধ্যমে প্রতি জন দর্শনার্থীর কাছ থেকে ১০ টাকা করে টিকিট নিচ্ছে গাংনী উপজেলা প্রশাসন।

ইকোপার্কে ঘুরতে আসা দর্শনার্থী সাইদুর রহমান জানান, ইতিপূর্বে এই পার্কে কোন টিকিট নেওয়া হয়নি। আজ হঠাৎ পরিবার নিয়ে ঘুরতে এসে দেখি পার্কের গেটে আনসার সদস্যের মাধ্যমে টিকিট নেওয়া হচ্ছে এবং টিকিট ছাড়া কাউকে ভিতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

পার্কে ঘুরতে আসা জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, বন্ধু বান্ধবের সাথে ঘুরতে এসেছি। বলতে গেলে একপ্রকার জোরপূর্বক আমাদের কাছ থেকে টিকিট বাবদ ১০ টাকা করে আদায় করছে পার্কের লোকজন ও আনসার সদস্যরা। কেন টিকিট দেওয়া হচ্ছে এমন প্রশ্নের উত্তরে পার্কের দায়িত্বরত লোকজন ও আনসার সদস্যরা আমাদের বলেন এ বিষয়ে ইউএনও স্যার জানেন, আমরা কিছু জানি না।

নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক পার্কের এক কর্মচারী জানান, হঠাৎ করেই ইউএনও স্যার কোনো কারণ ছাড়াই পার্কে, টিকিটের ব্যবস্থা করেছেন। অনেকেই বিনোদন নিতে এসে টিকিটের ঝামেলার জন্য ভিতরে প্রবেশ না করে বাসায় ফিরে যাচ্ছেন।

দর্শনার্থীদের অনেকেই জানান, পার্কে প্রবেশে জনপ্রতি ১০ টাকা করে টিকিট মূল্য নেওয়া হচ্ছে। এতে করে অনেকেই ভিতরে প্রবেশ না করে ফিরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। যদি টিকিটের ১০ টাকা না নেওয়া হতো তবে তারা ভিতরে প্রবেশ করে বিনোদনের অন্যান্য জায়গাগুলোতে টিকিট সংগ্রহ করেই প্রবেশ করতো। এতে করে বিনোদন প্রেমীদের ফিরতেও হতো না। পার্ক কর্তৃপক্ষও লাভবান হতো বলে তারা মতপ্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী খানম বলেন, সরকারিভাবে পার্কে কোন বরাদ্দ নেই। তাই পার্কের উন্নয়ন ও কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার জন্যই বাধ্য হয়ে এ টিকিটের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর