মেহেরপুরে সয়াবিন তেলের সংকটঃ মাত্র ১ দিনের ব্যবধানে কেজিতে ২৫ টাকা বৃদ্ধি

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২০ এপ্রিল, ২০২২
  • ২১৪ বার পঠিত

মেহেরপুরে সয়াবিন তেলের সংকট দেখা দিয়েছে। মাত্র ১ দিনের ব্যবধানে সয়াবিনের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে কেজিতে ২৫ টাকা। ঈদুল ফিতর কে সামনে রেখে হঠাৎ গত মঙ্গলবার থেকে মেহেরপুর সদর ও গাংনী উপজেলার বিভিন্ন বাজারে সয়াবিন তেলের সংকট দেখা দিয়েছে। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে অনেকেই ১৭৫ টাকার পরিবর্তে প্রতি কেজি সয়াবিন বিক্রি করছেন ১৯৫ টাকা থেকে ২০০ টাকায়। সোমবার যার মূল্য ছিল ১৭৩ থেকে ১৭৫ টাকা। বুধবার (২০ এপ্রিল), বিকেল অবধি একই মূল্যে সয়াবিন তেল বিক্রি করা হচ্ছে। জেলার গাংনী উপজেলার বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলের খুচরা ব্যাবসায়ীদের দাবি গাংনী বাজারে সয়াবিন তেল না থাকায় বাজার মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যবসায়ী জানান, গাংনী উপজেলা শহরের পাইকারি ব্যবসায়ীরা হঠাৎ মূল্য বৃদ্ধি করেছে এবং সয়াবিন তেল নেই বলে জানাচ্ছেন।

 

ব্যবসায়ীরা জানান, গত সোমবার প্রতি ব্যারেল সয়াবিন (১৮৫ কেজি) ৩৪ হাজার টাকায় ক্রয় করলেও মঙ্গলবার সকালে ৩৪ হাজার ৫০০ টাকায় ক্রয় করতে হয়েছে। বিকেলে তা ৩৫ হাজার টাকায় উঠেছে। বুধবার বিকেল অবধি তা ৩৫ হাজার টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। কেউ কেউ সয়াবিন নাই বলেও জানিয়েছেন।

এদিকে খুচরা ব্যাবসায়ীদের অভিযোগ সয়াবিন ক্রয়ের ক্ষেত্রে তাদের কোন রকম রশিদ দেওয়া হয়না। কখনও কখনও দিলেও তাতে ক্রেতার নাম উল্লেখ করা হয় না। সয়াবিন তেলের মূল্য বেশি নেওয়া সম্বন্ধে জানতে চাইলে খুচরা ব্যাবসায়ীরা ক্যামেরার সামনে মুখ খুলতে নারাজ। তারা জানান, ক্যামেরার সামনে মুখ খুললে আগামীতে তাদের সয়াবিন তেল দেবেন না পাইকারি ব্যবসায়ীরা। এদিকে হঠাৎ করে সয়াবিন তেলের মূল্য ১৭৫ থেকে ২০০ টাকায় বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তাদের অভিযোগ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর নির্দেশে সয়াবিন তেলের ভ্যাট প্রত্যাহার করা হয়েছে। মোড়কজাত সয়াবিন তেলের মূল্য প্রতি লিটার ১৬৮ টাকা, খোলা সয়াবিন ১৪৩ টাকা ও খোলা পাম ওয়েল ১৩৩ টাকা খুচরা মূল্য নির্ধারণ করা হলে ঈদকে সামনে রেখে কেন তা বৃদ্ধি করা হলো।

 

তবে মেহেরপুর জেলা শহরের থানার মোড় এলাকায় প্রতি কেজি সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৯০ টাকায়। মেহেরপুর সদর উপজেলার হরিরামপুর, গোভীপুর, সোনাপুর, কাঁঠালপোতা, দফরপুর ও বুড়িপোতাসহ একাধিক স্থানে ফোন করে সেখানে ১৯০ কেউ কেউ ১৯৫ টাকা দরে সয়াবিন তেল বিক্রি করছেন বলে জানা যায়। সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ার কারণ হিসেবে গাংনী উপজেলা শহরের কাথুলী রোডের সুমন স্টোরের স্বত্ত্বাধিকার দোয়াত আলীকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি ব্যস্ত রয়েছেন পরে জানাবেন বলে জানান। সোমবার কতটাকা কেজি বিক্রি হয়েছে জানতে চাইলে তিনি জানাতে ব্যর্থ হয়েছেন। মঙ্গলবার কতটাকা কেজি বিক্রি করেছেন জানতে চাইলে সয়াবিন তেল নেই বলে জানান।

 

সর্বশেষ দোয়াত আলী জানান, রাতে সয়াবিন তেল আসছে আগামীকাল সকালে নতুন বাজার মূল্য জানাবেন। তবে মঙ্গলবার সকালে তিনি প্রতি ব্যারেল সয়াবিন ৩৪ হাজার ৫০০ টাকায় বিক্রি করেছেন এমন প্রমাণ রয়েছে। বিকেলেও ৩৫ হাজার টাকায় প্রতি ব্যারেল বিক্রি করেছেন বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনৈক খুচরা ব্যাবসায়ী জানান। গাংনী বাজারের কাশেম ট্রেডার্স কে সয়াবিনের বাজার মূল্য জানতে ফোন করা হলে সয়াবিন তেল নেই বলে জানান।

 

সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধি সম্পর্কে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী খানমের কাছে ফোন করা হলে সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধি সম্পর্কে তিনি অবগত নেই বলে জানান। তবে কেউ সয়াবিন আটকিয়ে রেখে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করলে তা জানালে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবেন। ঘন্টায় ঘন্টায় সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন। তারপরও বাজার মূল্য কেমন চলছে তা জেনে ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, মেহেরপুর এর সহকারী পরিচালক সজল আহমেদ কে জানানো হলে তিনি জানান, তদারকি অব্যাহত রয়েছে। সয়াবিন তেলের মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে খোঁজ নিয়ে অতি জরুরি কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর