হরিণাকুণ্ডুতে ঝুলছে মায়ের লাশ, দুধ খেতে কাঁদছে শিশু

হরিনাকুণ্ডু(ঝিনাইদহ)থেকে রাব্বুল হুসাইন
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৪৭৭ বার পঠিত

ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে তিন মাসের দুধের শিশুকে রেখে মোছাঃ মনিকা পারভিন (২১) নামের এক গৃহবধূ গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। মায়ের মরদেহের পাশে বসে কাঁদছে এক শিশু। বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে বাড়িতে থাকা ঝুলন্ত ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

 

নিহত মনিকা পারভিন উপজেলার তাহেরহুদা ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের মনিরুল ইসলাম এর মেয়ে ও একই উপজেলার আর্দশ আন্দুলিয়া গ্রামের মজিদ মন্ডলের ছেলে মোঃ রোকন আলীর স্ত্রী। জানা গেছে, সকালে তার মা, মনিকা পারভিনকে ডাকতে যায়। অনেকক্ষণ সাড়া শব্দ না মেলায় পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হয়।

পরে গামছা পেঁচানো অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তার আত্মহত্যার সঠিক কারণ জানা না গেলেও স্থানীয়রা জানিয়েছেন হয় তো পারিবারিক কলহের জেরে তিনি আত্মহত্যা করেছেন নিহতের পরিবার ও স্বজন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ৩ নং তাহেরহুদা ইউনিয়নের আর্দশ আন্দুলিয়া গ্রামের মজিদ মন্ডলের ছেলে মোঃ রোকন আলীর সাথে তিন বছর আগে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবন সুখে শান্তিতে অতিবাহিত করছিলেন।

 

তিন মাস আগে এই সুখী দম্পতির ঘর আলোকিত করে একটি মেয়ে কন্যা সন্তান জন্ম নেয় মা-বাবা মেয়ের নাম রেখেছিল (ইলমা)। সেই আদরের মেয়েকে রেখে মা মনিকা কেন আত্মহত্যা করল তা এখনো অজানা স্বজনদের কাছে। হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ভবানীপুর ক্যাম্প ইনচার্জ এস আই বাবলু খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে,পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। মরদেহ উদ্ধারের সময় ছোট শিশুটি মায়ের দুধ খাওয়ার জন্য কান্না করছিল। তখন তার বড় বোন ছোট বোনের কান্না থামানোর চেষ্টা করছিল। এক পর্যায়ে কান্না করতে করতে ঘুমিয়ে পড়ে শিশুটি।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর