গাংনীতে প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে গর্ভবতী মহিলার উপর হামলা-নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫১৪ বার পঠিত

মেহেরপুরের গাংনীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে পারিবারিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে গর্ভবতী গৃহবধূর উপর হামলা-নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।আজ রবিবার দুপুর আনুমানিক ২ টার সময় উপজেলার মটমুড়া ইউনিয়নের চরগোয়ালগ্রাম গ্রামের স্কুলপাড়ায় প্রকাশ্যে গর্ভবতী পরস্ত্রী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, চরগোয়ালগ্রামের স্কুল পাড়ার মৃত বাদল সেখের মেয়ে এবং একই গ্রামের সাদ্দাম হোসেনের স্ত্রী শাবানা খাতুন (৩০ কে প্রতিবেশী চাঁদ মহাম্মদের ছেলে বদিউল ওরফে বদি,দবির উদ্দিনের ছেলে জিয়ারুল ইসলাম, কামরুলের ছেলে তরিকুল ইসলাম,বদিরুলের ছেলে সজিব ও আজিমদ্দীন মোল্লার ছেলে খায়রুল পূর্বপরিকল্পিতভাবে পিস্তল, দেশীয়,অস্ত্র রামদা, হাসুয়া, লোহার রড, লাঠি নিয়ে শাবানার বাড়ীতে হামলা চালায়।

 

হামলা করে গর্ভবতী শাবানাকে টেনে হিচড়ে বাড়ী থেকে বের করে নিয়ে শারীরিক নির্যাতন চালায়।তাকে উপর্যুপুরি কিলঘুষি মারে ও বেধড়ক মারপিট করে লাঞ্ছিত করে ফেলে রেখে যায়।এসময় শাবানার বড় বোন সুচরিতা খাতুন (৩৫) ও শ্বশুর আরশেদ আলী বাঁধা দিতে গেলে তাদেরকেও আঘাত করে।গুরুতর আহত শাবানা খাতুন বর্তমানে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।গর্ভবতী শাবানা তার অনাগত সন্তান নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় রয়েছে।

আহত শাবানা জানান, আমার বাবা গরীব মানুষ।পাশ্ববর্তী গ্রামে আমার বিয়ে হয়েছিল।আমার স্বামী একজন দুর্বৃত্ত, মদ্যপ, নেশাখোর ও খারাপ লোক জেনে আমি ত্যাগ করে গ্রামে সাদ্দাম হোসেনের সাথে বিয়ে করি। আমার বাদ দেয়া লম্পট্রে সাথে এই বদির মেয়ের বিয়ে হয়। এর পর থেকেই তার ইন্ধনে বদির পরিবার আমাদের উপর নানাভাবে অত্যাচার শুরু করে। প্রায়শঃ উল্লেখিত দৃবৃত্তরা আমাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে ও মিথ্যা অপবাদ রটিয়ে আসছে।দিনে রাতে অকারনে আমাদের বাড়ীতে ইট পাটকেল ও ময়লা আবর্জনা নিক্ষেপ করে।এইসব অপকর্মের প্রতিবাদ করায় আজ প্রতিপক্ষরা আমার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেছে।আমি এদের বিচার চাই।

 

 

এব্যাপারে গাংনী হাসপাতালের চিকিৎসক ডা.আদিলা আজহার জানান,গর্ভের সন্তানের অবস্থা মোটামুটি ভাল রয়েছে।চিকিৎসা দিলে কোন সমস্যা হবে না। তবে সাবধানে থাকতে হবে এবং চলাফেরা করতে হবে।

এনিয়ে শাবানার স্বামী সাদ্দাম হোসেন জানায়, আমরা গরীব মানুষ। আমার স্ত্রীর উপর নানাভাবে উত্ত্যক্ত ও অত্যাচার নির্যাতন করে আসছে।এই দুষ্টচক্রের মধ্যে কয়েকজন দাগী আসামী রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে।আমার স্ত্রী বর্তমানে গর্ভবতী। আমার অনাগত সন্তানের কিছু ক্ষয়ক্ষতি হলে আমি আইনগত ব্যবস্থা নেব। এনিয়ে আমি বিচার চেয়ে থানায় মামলা করবো।

এব্যাপারে গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ বজলুর রহমান জানান, এখন পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ আসেনি।অভিযোগ পেলে খোঁজখবর নেয়া হবে।

দয়া করে নিউজটি শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর